অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নির্বাচনী দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন থাকতে ডিসি-এসপিকে নির্দেশ দিলেন সিইসি


বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল শনিবার (৮ অক্টোবর), জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও পুলিশ সুপারদের (এসপি), আগামী বছরের শেষ নাগাদ বা ২০২৪ সালের শুরুতে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় নির্বাচনে যে কোনো ভয়ভীতি মোকাবেলায়, তাদের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সিইসি বলেন, “নির্বাচনে কোনো অবৈধ হস্তক্ষেপ যদি শক্ত হাতে মোকাবেলা না করা হয়, তাহলে সেটা নির্বাচন নয়, প্রহসন।”

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, “আগামী নির্বাচনে এর মারাত্মক নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। আপনাদের অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে। তাই আগামী সময়ে প্রতিটি নির্বাচন সফলভাবে পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় সকল ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন।”

আগামী জাতীয় নির্বাচন বিষয়ে আলোচনার জন্য শনিবার সারাদেশের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক করেছে নির্বাচন কমিশন। বৈঠকে সিইসি এ কথা বলেন। শনিবার রাজধানীর ঢাকায় নির্বাচন কমিশন মিলনায়তনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে সিইসি বলেন, “ডিসি ও এসপিদের কঠোর অবস্থান, নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় জনগণের আগ্রহ ও আস্থাকে শক্তিশালী করবে, তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগে উৎসাহিত করবে।”

ডিসি ও এসপিদের, তাদের ভূমিকা পালন করার সময় নিজস্ব রাজনৈতিক মতাদর্শ এড়িয়ে চলার কথা স্মরণ করিয়ে দেন সিইসি। তিনি বলেন, “আপনারা সরকারি কর্মচারী। আপনার অবস্থানে আপনাকে নিরপেক্ষ হতে হবে। দেশের আইন অনুযায়ী আপনাকে আপনার দায়িত্ব পালন করতে হবে। এটা জনগণের প্রত্যাশা। সকল নিয়ম-কানুন প্রয়োগ করে জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করে আস্থা অর্জন করতে হবে।”

সিইসি আরও বলেন, “বিরোধপূর্ণ রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে বিরোধ মেটানো নির্বাচন কমিশনের বিষয় নয়। সংবিধান, আইন ও বিধি আমাদের কাজের পরিধি, ক্ষমতা ও দায়িত্ব নির্ধারণ করেছে। রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে নির্বাচন কমিশন (ইসি) হস্তক্ষেপ করতে পারে না।”

কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন যে ডিসি ও এসপিদের অবশ্যই গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন জাতীয় সরকার ও স্থানীয় সরকার সংস্থা গঠনের গুরুত্ব বুঝতে হবে।

বৈঠকে অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারগণ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত আইজিপি উপস্থিত ছিলেন।

XS
SM
MD
LG