অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পুতিন জ্বালানি শক্তিকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছেন: জার্মানির শোলজ


জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ

জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ বৃহস্পতিবার বলেন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শক্তিকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছেন, কিন্তু তার কৌশল কেবল ইউক্রেনের সমর্থনে পশ্চিমা মিত্রদের পরস্পরের কাছাকাছি নিয়ে আসছে।

শোলজ জার্মান পার্লামেন্টে ইউরোপীয় ইউনিয়নের জ্বালানি সম্মেলনের আগে এই মন্তব্য করেছেন। দুই সপ্তাহের মধ্যে ২৭-সদস্যের ব্লকের এটি হবে দ্বিতীয় বৈঠক যখন তারা জ্বালানির দাম কমানোর চেষ্টা করছে এবং ঠিক কীভাবে তা করতে হবে তা নিয়ে মতভেদের মধ্যে কাজ করছে।

পার্লামেন্টে তার মন্তব্যে, শোলজ বলেছেন যে শীতের মাসগুলির আগে জ্বালানি শক্তির অবকাঠামোকে লক্ষ্য করে ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করার রাশিয়ার প্রচেষ্টাকে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে " পোড়া মাটি কৌশল" বলে অভিহিত করেছেন।

জ্বালানি শক্তি বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনের দিকে তাকিয়ে, শোলজ গ্যাসের দামের উপর একটি সীমা নির্ধারণের বিরুদ্ধে সতর্ক করেছেন। তবে এই পদক্ষেপকে সমর্থন করছে ১৫টি ইইউ সদস্য রাষ্ট্র।


তিনি যুক্তি দেন, "রাজনৈতিকভাবে নির্ধারিত মূল্যের সীমা সর্বদা এই ঝুঁকি তৈরি করে যে উত্পাদকরা তাদের জ্বালানি তেল অন্যত্র বিক্রি করবে এবং আমরা ইউরোপীয়রা বেশির পরিবর্তে কম জ্বালানি তেল পাব।"


শোলজ জাপান এবং কোরিয়ার মতো অন্যান্য জ্বালানি তেল ভোক্তাদের সাথে ইইউকে ঘনিষ্ঠভাবে সমন্বয় করার পরামর্শ দিয়েছেন, যাতে উপযুক্ত মূল্য নির্ধারণের বিষয়ে উত্পাদকদের সাথে আলোচনা করার সময় তাদের নিজেদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে না হয়।

জার্মান নেতা বলেছেন যে তিনি যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা বা নরওয়ের মতো জ্বালানি শক্তি-উৎপাদনকারী মিত্রদের বিশ্বাস করেন, "ইউরোপে যাতে শক্তি সাধ্যের বাইরে না চলে যায় তা নিশ্চিত করার আগ্রহ তাদের রয়েছে।"

এই প্রতিবেদনের জন্য কিছু তথ্য এপি, রয়টার্স এবং এএফপি থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG