অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শিক্ষার্থীর মৃত্যু: এবার অভিযোগ করলো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

বাংলাদেশে এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অভিযোগের পর, পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রশাসন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী শাহরিয়ারের মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে, হাসপাতালে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার অভিযোগ এনে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। শনিবার (২২ অক্টোবর) বিকালে নগরীর রাজপাড়া থানায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আবদুস সালাম স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।

অভিযোগে বলা হয় যে গত ১৯ অক্টোবর আনুমানিক সাড়ে ৮টায় গুরুতর আহত অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী এম.জে.এম. শাহরিয়ারকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক গুরুতর আহত শাহরিয়ারকে আইসিইউ’তে না নিয়ে, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসক ও নার্স বিলম্বে আসে এবং নানা অজুহাতে চিকিৎসা প্রদানে কালক্ষেপণ করতে থাকে। ফলে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে বিলম্ব ও বিনা চিকিৎসায় শাহরিয়ার মৃত্যুবরণ করে।

অভিযোগপত্রে আরও বলা হয়, শাহরিয়ারের মৃত্যুর বিষয়টি সাধারণ ছাত্রদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছায় এবং চিকিৎসকের অবহেলাজনিত কারণে মৃত্যু ঘটায় স্বাভাবিকভাবেই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় শিক্ষার্থীরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ ও ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকে। সেই সময় ৮ নম্বর ওয়ার্ড ও তার আশেপাশের ওয়ার্ডে কর্তব্যরত চিকিৎসক, ইন্টার্নি, নার্স, আনসার ও তাদের উচ্ছৃঙ্খল সহযোগীরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শোকার্ত শিক্ষার্থীদের অবরুদ্ধ করে, গালিগালাজ করে এবং আকস্মিকভাবে হামলা চালায়।

রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একটা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তবে তা এখনো মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হয়নি। পর্যালোচনা চলছে। দ্রুত এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।”

উল্লেখ্য, এর আগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ৭২ ঘণ্টার (তিন দিনের) কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন। শনিবার (২২ অক্টোবর) দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত হাসপাতালের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে এ ঘোষণা দেন ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডা. ইমরান হোসেন।

তিনদিনের মধ্যে হামলায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করা না হলে আরও কঠোর কর্মসূচী দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেন ডা. ইমরান।

XS
SM
MD
LG