অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ফেসবুক-কে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে: টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার


টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সঙ্গে ফেসবুকের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা শাবনাজ রশীদ দিয়া।

চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ফেসবুক-কে আরও কার্যকর উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেন, “ড্রয়িং রুমের আলোচনার মতই ফেসবুক মানুষের অনুভূতি প্রকাশের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে ফেসবুক। পাশাপাশি, কোন কোন ক্ষেত্রে মিথ‌্যা তথ‌্য পরিবেশন ও গুজব ছড়ানোসহ, এর নানা অপব‌্যবহার ভয়ংকর অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে। অস্থিতিশীল পরিস্থিতি কেবল সমাজ কিংবা রাষ্ট্র নয়, এটি ফেসবুকের জন‌্যও একটি বড় চ‌্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ফেসবুক-কে আরও কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।”

মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) সচিবালয়ে ফেসবুকের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা শাবনাজ রশীদ দিয়া, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠককালে মন্ত্রী এই আহ্বান জানান।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী, বাংলাদেশ ফেসবুক-এর একটি বড় বাজার বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, “জিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় দেশব্যাপী ইন্টারনেটসহ শক্তিশালী টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে। পৃথিবীর অন‌্যান‌্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ফেসবুক-কে এ খাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসার সুযোগ রয়েছে।”

মোস্তাফা জব্বার ২০১৮ সালে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সাথে বার্সেলোনায় প্রথম বৈঠকের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, “এই ধারাবাহিকতায় গত ৫ বছরে পারস্পরিক সৌহাদ‌্যপূর্ণ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমরা এখন দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার মাধ‌্যমে অনেক সমস‌্যার সমাধান করতে পারছি।”

টেলিযোগাযোগমন্ত্রী, ফেসবুক-কে বাংলাদেশের আইন ও বিধি বিধান মেনে চলার পরামর্শ দেন। এছাড়া, দেশ ও দেশের বাইরে থেকে রাষ্ট্রীয়, সামাজিক এবং ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সম্মান বিঘ্নিত করে এমন মিথ্যা ও গুজব বা অপপ্রচার মূলক উপাত্ত প্রচার; সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, রাষ্ট্রদ্রোহিতা, পর্নোগ্রাফি ও বাংলাদেশের সামাজিক-সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ বিরোধী উপাত্ত প্রচার না করতে পরামর্শ দিয়ে, এ বিষয়ে সরকারের মনোভাব ব‌্যক্ত করেন তিনি।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তির মাধ্যমে পৃথিবীর ১৬৫টি ভাষায় ফেসবুক যে কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে, তাকে পৃথিবীর সকল ভাষার প্রতি ফেসবুকের বিরল সম্মান প্রদর্শন বলে উল্লেখ করেন মোস্তাফা জব্বার।

শাবনাজ রশীদ দিয়া বলেন, “অন্যান্য দেশের নীতি, আইন আর বাংলাদেশের নীতি অনেকটা ভিন্ন। আমরা ক্ষতিকর কনটেন্টের বিষয়ে সতর্ক আছি। যে কোনো বিধি-বিধানের ক্ষেত্রে অবশ্যই মানুষের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বিশেষ বিবেচনায় রাখা উচিত। ঝুঁকিপূর্ণ কনটেন্টের বিষয়ে সচেতন থাকার বিষয়ে সরকার থেকেও বারবার বলা হয়েছে, আমরা সেই আলোকে ব্যবস্থাও নিয়েছি।”

ফেসবুক কর্তৃক বাংলাদেশে ডিজিটাল অবকাঠামো নির্মাণে ভূমিকা রাখার আশ্বাস ব্যক্ত করেন তিনি। ইতোমধ‌্যে ফেসবুক প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ব্যবসা করার সুযোগ সৃষ্টির জন্য ১০ লাখ মানুষকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে বলে দিয়া টেলিযোগাযোগমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

বিটিআরসি ওটিটি গাইডলাইন নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন ফেসবুক প্রতিনিধি শাবনাজ রশীদ দিয়া।

XS
SM
MD
LG