অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রগতিশীল ডেমোক্র্যাটরা বাইডেনকে রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন


ফাইল ছবি – প্রতিনিধি প্রমিলা জয়পাল ওয়াশিংটনের একটি সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন। তার সঙ্গে আছেন (বাম থেকে) জেমি রাসকিন, মার্ক টাকানো ও মার্ক পোকান (১২ আগস্ট, ২০২২)

সোমবার ডেমোক্র্যাট দলের প্রগতিশীল আইনপ্রণেতারা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে দেশটির দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করে সরাসরি রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন।

৩০ জন হাউজ ডেমোক্র্যাট এবং তাদের নেতা ও প্রতিনিধি প্রমিলা জয়পালের স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে বলা হয়েছে, তারা “রাশিয়ার আগ্রাসী যুদ্ধের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের যৌক্তিক সংগ্রামের প্রতি” বাইডেনের অঙ্গীকারের প্রশংসা করেন এবং স্বীকার করেন, রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনের সাফল্যে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক, সামরিক ও মানবিক সহায়তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

তবে আইনপ্রণেতারা চিঠিতে আরও জানান, ইউক্রেনের জনমানুষের ওপর ভয়াবহ বিপর্যয় সৃষ্টির পাশাপাশি বৈশ্বিক খাদ্য সঙ্কটের ঝুঁকি তৈরি এবং জ্বালানি ও শস্যের মূল্য বাড়ানোর মাধ্যমে দারিদ্র্য সৃষ্টিকারী এই যুদ্ধের অবসান ঘটাতে কূটনৈতিক উদ্যোগও যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলের অংশ হওয়া উচিৎ। এই চিঠি সম্পর্কে প্রথম খবর দেয় দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকা।

২০২২ এর জুনে একটি সংবাদ সম্মেলনে বাইডেন স্বীকার করেন, যে এই সংঘর্ষের অবসান ঘটাতে ইউক্রেনকে রাশিয়ার কাছে কিছু ভূখণ্ড ছেড়ে দিতে হতে পারে।

ফেব্রুয়ারিতে বিনা উসকানিতে রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা চালানোর পর থেকে ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র মানবিক, অর্থনৈতিক ও সামরিক সহায়তা বাবদ ৬ হাজার কোটি ডলার পাঠিয়েছে। সোমবারের চিঠিতে কংগ্রেসের প্রগতিশীল সদস্যরা সহায়তা চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে মত দেন।

নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে রিপাবলিকান দল জয়লাভ করলে হাউজের সংখ্যালঘু নেতা কেভিন ম্যাককার্থি স্পিকার হতে পারেন। তিনি জানান, অভ্যন্তরীণ অর্থনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে উদ্বেগের কারণে ইউক্রেনে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা অব্যাহত থাকার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

প্রগতিশীল ডেমোক্র্যাটরা বাইডেনের দৃষ্টিভঙ্গির প্রশংসা করে বলেন, প্রশাসনের নীতিমালা সর্বাত্মক পারমাণবিক সংঘাত এড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

চিঠিতে বলা হয়, “ইউক্রেনে রাশিয়ার আপত্তিকর ও অবৈধ আক্রমণ ও অবৈধভাবে ইউক্রেনের আরও ভূখণ্ড অধিগ্রহণের তাদের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষাপটে তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসার সমস্যাগুলো নিয়ে আমাদের মাঝে কোনো ভ্রান্ত ধারণা নেই। তবে, যদি একটি স্বাধীন ও মুক্ত ইউক্রেন বজায় রেখে যুদ্ধের অবসান ঘটানোর কোনো উপায় থাকে তবে সব ধরনের কূটনৈতিক প্রক্রিয়া অবলম্বন করা যুক্তরাষ্ট্রের দায়িত্ব।”

XS
SM
MD
LG