অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পাকিস্তানে বন্যায় ২০ লাখের বেশি শিশু স্কুলে যাওয়া থেকে বঞ্চিতঃ জাতিসংঘ


৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ তারিখে পাকিস্তানের সুক্কুরে জামায়াতে ইসলামী পাকিস্তান আয়োজিত স্কুলে বন্যাকবলিত শিশুরা পড়ালেখা করছে।

জাতিসংঘ বৃহস্পতিবার বলেছে, পাকিস্তানে সাম্প্রতিক ভয়াবহ বন্যায় প্রায় ২৭ হাজার স্কুল ধ্বংস বা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যার ফলে দেশটির ২০ লাখেরও বেশি শিশু তাদের শিক্ষা জীবনে ফিরে যেতে পারছে না।

ইউনিসেফ বৃহস্পতিবার বলেছে, দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে বিধ্বংসী বন্যা পাকিস্তানের বিস্তীর্ণ এলাকা গ্রাস করেছে। বন্যার জল পুরোপুরি হ্রাস পেতে কয়েক মাস সময় লাগতে পারে।

পাকিস্তান ও জাতিসংঘের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত মৌসুমী ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে সৃষ্ট এই বন্যায় সারা দেশে ৩ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং ১,৭০০ জনের বেশি মানুষ মারা গেছে। বন্যার পানিতে কমপক্ষে ৮০ হাজার ঘরবাড়ি ভেসে গেছে। তাছাড়া ১২ লক্ষ গবাদি পশু মারা গেছে এবং ৯৪ লক্ষ একর ফসলি এলাকা ডুবে গেছে।

ইউনিসেফের হিসাব অনুযায়ী, সারা পাকিস্তানে বন্যার কারণে ৩৫ লাখেরও বেশি শিশুর শিক্ষা ব্যাহত হয়েছে। এতে সতর্ক করে বলা হয়, স্কুলগুলো যত বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকবে, শিশুদের পুরোপুরি ঝরে পড়ার ঝুঁকি তত বেশি হবে, তাদের শিশুশ্রমে বাধ্য হওয়ার সম্ভাবনা বাড়বে । প্রায় ২২ কোটি মানুষের দেশটিতে অন্যান্য ধরনের নির্যাতনের শিকার হওয়ার সম্ভাবনাও বাড়বে।

ইউনিসেফের মতে, পাকিস্তানে ইতিমধ্যে বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক স্কুল-বহির্ভূত শিশু রয়েছে যা কিনা মূল জনসংখ্যার ৪৪% এর প্রতিনিধিত্ব করে। এদের বেশির ভাগের বয়স ৫-১৬ বছর।

ইউনিসেফ বলছে, তারা পাকিস্তানের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলোতে ৫০০টিরও বেশি অস্থায়ী শিক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করেছে এবং শিক্ষক ও শিশুদের শিক্ষাদানে সহায়তা করেছে।

XS
SM
MD
LG