অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বেনাপোল দিয়ে ভারতে ফিরল ৯ দেশের পর্যটকবাহী ভিন্টেজ কার র‍্যালি


বেনাপোল দিয়ে ভারতে ফিরল ৯ দেশের পর্যটকবাহী ভিন্টেজ কার র‍্যালি

বিশ্বের বিভিন্ন নামিদামি কোম্পানির শত বছরের পুরোনো ১৬টি কার (ভিন্টেজ কার) ও দুটি মোটরসাইকেলের র‌্যালি নিয়ে, বাংলাদেশ ভ্রমণে আসা ৪৩ পর্যটকের দলটি বেনাপোল দিয়ে ভারতে ফিরে গেছে। বাংলাদেশের কয়েকটি জেলা পরিদর্শন করে ছয়দিন পর তারা ভারতে ফিরে গেলেন।

শুক্রবার (১১ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ভিন্টেজ কার র‌্যালির ৪৩ জন পর্যটক ভারতে প্রবেশ করেন। এর আগে, বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) যশোরে তারা রাত্রিযাপন করেন।

বেলজিয়াম,পর্তুগাল, ফিনল্যান্ড, জার্মানি, ফ্রান্স, দক্ষিণ আফ্রিকা ও যুক্তরাজ্যসহ অন্তত ৯টি দেশের নাগরিক নিজেদের খরচে এই ভ্রমণে অংশগ্রহণ করেন। প্রতিবছর তারা এই অ্যাডভেঞ্চার আনন্দ শোভাযাত্রা করেন।

গত রবিবার (৬ নভেম্বর) সকালে ভারতের ডাউকি সীমান্ত হয়ে, সিলেটের তামাবিল ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশ আসেন ৪৩ পর্যটকের এই দলটি। পরে মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) বিকালে তারা গাজীপুরে পৌঁছান।

সেখানে এক-রাত্রিযাপন শেষে বুধবার (৯ নভেম্বর) সকালে তারা পাবনার উদ্দেশে রওনা হন। সেখানে একরাত থাকার পর বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) যশোর পৌঁছায় পর্যটক দলটি। যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে শুক্রবার কলকাতার উদ্দেশে রওনা হন তারা।

ভ্রমণকালে বাংলাদেশের মানুষ, প্রকৃতি, শিল্প, সংস্কৃতি ও খাবারের সঙ্গে পরিচিত হয়েছেন বিদেশি এই পর্যটক দল। যশোরের মানুষের আচার-আচরণ, প্রাকৃতিক রূপ, আর আতিথেয়তায় মুগ্ধ হয়েছেন বলে জানান ইউরোপীয় পর্যটকরা।

২০ অক্টোবর থেকে ইস্ট হিমালয়া ক্লাসিক্যাল কার র‌্যালি শীর্ষক ভিনটেজ কার র‌্যালিতে অংশ নেওয়া দলটি এ বছর বাংলাদেশসহ তিনটি দেশ ভ্রমণ করে। তিন হাজার ২৪৪ কিলোমিটারের পথ পাড়ি দিয়ে র‌্যালিটি কলকাতায় গিয়ে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

শত বছরের পুরানো বিশ্বের নামিদামি মডেলের বিভিন্ন কোম্পানির কার দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েন বেনাপোলের মানুষ। র‌্যালিটি বেনাপোল পৌঁছালে কয়েকশ’ লোক শত বছরের পুরানো কারগুলো দেখার জন্য ভিড় জমায়।

পর্যটক দলের কো-অর্ডিনেটর ও দ্য জার্নি ওয়ালেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মতিউর রহমান জানান, “বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো এ ধরনের আন্তর্জাতিক র‌্যালি প্রবেশ করেছে। কার র‌্যালিতে অংশ নেওয়া বিদেশি নাগরিকরা বাংলাদেশের আতিথেয়তায় অত্যন্ত খুশি। তারা বাংলাদেশের মানুষের জীবনযাত্রা ও সংস্কৃতিকে বেশ পছন্দ করেছেন।

বাংলাদেশে ছেড়ে যাওয়ার আগে, বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন ভূইয়া ও ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ পর্যটকদেরকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

XS
SM
MD
LG