অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সব ভবনে কার্যকর অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে: মেয়র আতিক


বাংলাদেশের ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম
বাংলাদেশের ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম প্রত্যকটি বহুতল ভবনের মানসম্মত কার্যকর অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা স্থাপনের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
মেয়র আতিক বলেন, “অগ্নিদুর্ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতি ও জীবন বাঁচাতে বড় আকারের পূর্বপ্রস্তুতির কোনো বিকল্প নেই। নানা কারণে অগ্নিকাণ্ড ঘটতেই পারে। আমরা যদি নির্বাপনের জন্য প্রস্তুতি না নিয়ে হাত গুটিয়ে বসে থাকি; দিন শেষে ক্ষয়ক্ষতি আমাদেরই হবে। আগুনে পুড়ে মানুষের মৃত্যুর মিছিল দেখতে হবে।” তিনি বলেন, “নির্বাপন ব্যবস্থা থাকলেই হবে না। নির্বাপন ব্যবস্থা কতটুকু কার্যকর তা পরীক্ষা করে দেখতে হবে।”
শনিবার (২৬ নভেম্বর) সকালে রাজধানী ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে, বাংলাদেশে অগ্নিনিরাপত্তায় চ্যালেঞ্জসমূহ শিরোনামে আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর এবং ইলেকট্রনিক্স সেইফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ইস্সাব) যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
মেয়র আতিক বলেন, “বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি খাত গার্মেন্টস শিল্পে কর্মীদের অগ্নি নিরাপত্তার বিষয়টি অত্যন্ত কঠোর ভাবে মানা হয়। যে নিরাপত্তা-মান্যতা গার্মেন্টস শিল্প অনুসরণ করতে পারে, সেটা কেন সিটি কর্পোরেশন এলাকার বহুতল ভবনগুলো করতে পারবে না? সবার জীবন ও জীবিকার নিরাপত্তার স্বার্থে আমাদের সবাইকে তা অবশ্যই মেনে চলতে হবে।”
এ সময় তিনি বহুতল ভবনগুলোর চাকচিক্যের পাশাপাশি, বিল্ডিং কোড, ফায়ার সেফটি সহ অন্যান্য নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো গুরুত্বসহকারে নিশ্চিত করার আহবান জানান।

মেয়র আতিক বলেন, “২০ ফুটের কম প্রশস্ত রাস্তা হলে দুর্ঘটনা পরবর্তী কার্যক্রম চালানো ব্যহত হবে। কোনো ধরনের উদ্ধার সরঞ্জাম বা গাড়ি ঐ এলাকায় প্রবেশ করতেই পারবে না। তাই ২০ ফুটের কম প্রশস্ত রাস্তা হলে সিটি কর্পোরেশন তা উন্নয়নের জন্য কোনো বরাদ্দ দেবে না।”

XS
SM
MD
LG