অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিশ্বকাপে ইরানের পরাজয়ের পর ‘উল্লাসের’ সময়ে নিহত ব্যক্তির জন্য ইরানীদের শোক প্রকাশ


কাতার ২০২২ বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যকার গ্রুপ-বি ম্যাচটিতে ইরানের জাতীয় দলের পরাজয়ের পর, ইরানের ভক্তদের প্রতিক্রিয়া। খেলাটি রাজধানী তেহরানের মিলাদ টাওয়ারে দেখানো হচ্ছিল। ২৯ নভেম্বর ২০২২।

মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো জানিয়েছে যে, নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত এক ব্যক্তির জন্য শোক প্রকাশ করতে শুক্রবার ইরানীরা সমবেত হন। জানা গেছে, ২০২২ বিশ্বকাপ টুর্নামেন্টে ইরানের পরাজয় ও টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়ার পর, ঐ ব্যক্তি তার গাড়ির হর্ন বাজিয়ে উল্লাস প্রকাশ করার সময় নিরাপত্তা বাহিনীর চালানো গুলিতে তিনি মারা যান।

অসলো ভিত্তিক অধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ইন ইরান তাদের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও পোস্ট করেছে। তাতে দেখা যায় যে, ২৭ বছর বয়সী মেহরান সামাক-কে স্মরণ করতে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর বন্দর-আনজালিতে শুক্রবার শত শত শোকার্ত মানুষ সমবেত হয়েছেন।

ফ্রান্সের সংবাদ সংস্থা এএফপি-ও সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করা ঐ একই সমাবেশের ভিডিওগুলো প্রকাশ করেছে।

একাধিক প্রতিবেদনে জানানো হয় যে, সামাককে বুধবার সমাহিত করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবারও শোকার্ত মানুষ সমবেত হয়ে তার মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে।

হিউম্যান রাইটস ইন ইরান এবং নিউইয়র্ক ভিত্তিক সেন্টার ফর হিউম্যান রাইটস ইন ইরান, উভয়ই বলেছে যে, সামাক খুব সম্ভবত মঙ্গলবার বন্দর-আনজালি শহরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হন; যখন তিনি তার গাড়ির হর্ন বাজিয়ে উল্লাস প্রকাশ করছিলেন।তখন ইরান জুড়ে, বিভিন্ন শহরে এমন উল্লাস প্রকাশ করা হচ্ছিল।

বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ইরানের পরাজয়ে ইরানীদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে।অনেকেই নিজেদের জাতীয় দলকে সমর্থন করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। কারণ তারা দলটিকে সেই সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে বিবেচনা করেন, যে সরকার দুইমাসেরও বেশি সময় ধরে চলা বিক্ষোভে ব্যাপক দমনপীড়ন চালাচ্ছে। পুলিশের হেফাজতে মাহসা আমিনী নামের এক তরুণীর মৃত্যুর জের ধরে এই বিক্ষোভ শুরু হয়।

ইরানের জাতীয় ফুটবল দলের খেলোয়াড় সাইদ এজাতোলাহি, সামাকের সঙ্গে তোলা তাদের শৈশবকালের একটি ছবি পোস্ট করেছেন।, তিনি নিহত ঐ ব্যক্তিকে তার “শৈশবের সতীর্থ” বলে উল্লেখ করেন।

XS
SM
MD
LG