অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আইএস-এর ভিডিওতে কাবুল হোটেলে হামলাকারীদের আনুগত্য দেখানো হয়েছে


কাবুলের অন্যতম প্রধান বাণিজ্যিক এলাকা শাহর-ই-নাউতে হামলার স্থল থেকে ধোঁয়া উঠছে। ১২ ডিসেম্বর, ২০২২। ফাইল ছবি।

দ্য ইসলামিক স্টেট খোরাসান প্রভিন্স’এর দল এমন একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে যেখানে কাবুলের হোটেলে সোমবারের হামলা চালানোর দাবি করছে দুজন ব্যক্তি। ওই হোটেলে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে চীনা নাগরিকরাও অবস্থান করছিলেন।

হামলায় ৫ জন চীনা নাগরিক আহত হয়েছেন; তালিবান বাহিনীর সদস্যসহ বেশ কয়েকজন আফগান হতাহত হয়েছে। তালিবানের একজন মুখপাত্র বলেছেন, নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে বন্দুকধারীরা নিহত হয়েছে।


টেলিগ্রামে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) শেয়ার করা সংক্ষিপ্ত ভিডিওতে দুজন যুবককে ফিস ফিস করে ফার্সি ভাষায় তাজিকি উচ্চারণে কথা বলতে দেখা যায়। ভিডিওতে তাদেরকে আইএস নেতা আবু আল-হুসাইন আল-হুসেইনি আল-কুরাইশির প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করতে দেখা যায়।

তালিবান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই আক্রমণে ৩ জন হামলাকারী জড়িত ছিল, কিন্তু আইএসের ভিডিওতে মাত্র দুজনকে দেখা যায়।

হামলার নিন্দা

আফগানিস্তানের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স কারেন ডেকার এই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন।

তিনি টুইটারে লিখেছেন, “কূটনীতিক এবং আফগান জনগণের সুরক্ষার জন্য দ্রুত তদন্ত, জোরালো প্রতিক্রিয়াকে স্বাগত জানাই।নিহতদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা এবং প্রিয়জনদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।”

মঙ্গলবার বেইজিং তালিবান কর্তৃপক্ষকে আফগানিস্তানে তাদের কূটনীতিক এবং চীনা নাগরিকদের জন্য আরও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে।

গত বছর তালিবান ক্ষমতা দখলের পর কাবুলে যে দেশগুলো তাদের দূতাবাস বন্ধ করেনি তাদের মধ্যে চীন অন্যতম।

সোমবারের হামলার পর চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রকের একজন মুখপাত্র নতুন করে বেইজিং-এর পরামর্শ দিয়েছেন যে চীনের নাগরিকরা যেন যত দ্রুত সম্ভব আফগানিস্তান ত্যাগ করে।

XS
SM
MD
LG