অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চলতি সপ্তাহে বাংলাদেশের বেশিরভাগ এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে


আগামী ২০ থেকে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের বেশিরভাগ এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এসময় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নামতে পারে। কোথাও কোথাও তা কমে আট ডিগ্রি পর্যন্ত হতে পারে। (ফাইল ছবি)

আবহাওয়া পর্যবেক্ষণকারী স্বাধীণ সংস্থা, বাংলাদেশ ওয়েদার অবজারভেটরি টিম (বিডব্লিউওটি) জানিয়েছে যে ২০ থেকে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

বিডব্লিউওটি জানায়, ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত শীতের তীব্রতা কিছুটা কম থাকতে পারে। তবে, বাংলাদেশের বেশিরভাগ এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এসময় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নামতে পারে। কোথাও কোথাও তা কমে আট ডিগ্রি পর্যন্ত হতে পারে।

এদিকে, মধ্যরাত থেকে রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ৯টা পর্যন্ত বাংলাদেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের বুলেটিনে বলা হয়।

বাংলাদেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে রংপুর বিভাগের তেতুলিয়ায় এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০ দশমিক ০১ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় চট্টগ্রাম বিভাগের টেকনাফে। এদিকে, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় নিম্নচাপ বিরাজ করছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগরে বিস্তৃত রয়েছে। উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

ফেরি চলাচল ব্যাহত

ঘন কুয়াশার কারণে রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) রাজবাড়ী জেলার দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে ভোর ৬টার পর থেকে ফেরি চলাচল ব্যাহত হয়।
ঘন কুয়াশার কারণে রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) রাজবাড়ী জেলার দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে ভোর ৬টার পর থেকে ফেরি চলাচল ব্যাহত হয়।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয় জানায়, “শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত থেকে নদী ও সড়ক পথে ঘন কুয়াশা পড়তে থাকে। রাত বাড়ার সঙ্গে কুয়াশার ঘনত্ব বাড়তে থাকায়, দুর্ঘটনা এড়াতে রবিবার ভোর ৬টার দিকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ সময় দৌলতদিয়া প্রান্তে চারটি, পাটুরিয়া প্রান্তে ছয়টি এবং মাঝ নদীতে আরও তিনটি ফেরি নোঙর ফেলতে বাধ্য হয়।”

সকাল ৮টার দিকে দৌলতদিয়া ঘাটে দেখা যায়, কুয়াশার কারণে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক কুয়াশাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে। তখন দূরপাল্লার পরিবহনসহ সকল যানবাহন হেড লাইট জ্বালিয়ে ধীরে ধীরে চলতে দেখা যায়।

বিআইডব্লিউটটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক মো. সালাহ উদ্দিন জানান, কুয়াশার কারণে ভোর সাড়ে ৬টা থেকে ফেরি বন্ধ রয়েছে।

XS
SM
MD
LG