অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানে প্রিন্স হ্যারির 'যুদ্ধাপরাধ' করার স্বীকারোক্তি; তালিবানের নিন্দা


ব্রিটেনের প্রিন্স হ্যারির আত্মজীবনী "স্পেয়ার" আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশের আগেই স্পেনের বার্সেলোনায় একটি বইয়ের দোকানে দেখা যায়। ৫ জানুয়ারী, ২০২৩।

আফগানিস্তানে সামরিক হেলিকপ্টারের পাইলট হিসাবে দায়িত্ব পালন করার সময় ২৫ জন তালিবানকে হত্যার কথা স্বীকার করার জন্য প্রিন্স হ্যারির তীব্র নিন্দা করেছে দেশটির ইসলামপন্থী তালিবান সরকার।

ব্রিটিশ রাজপুত্র তার আসন্ন আত্মজীবনী, স্পেয়ারে এই হত্যার কথা প্রকাশ করেছেন। তিনি দাবি করেছেন, ব্রিটিশ সেনাবাহিনী তাকে তৎকালীন বিদ্রোহী তালিবান সদস্যদের "মানুষ হিসাবে" নয়, বরং বোর্ড থেকে ‘দাবার গুটি সরিয়ে’ দেওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ দিয়েছিল।

তালিবান পররাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র আব্দুল কাহার বলখি হ্যারির ওই স্বীকারোক্তির তীব্র নিন্দা করেছেন।

বলখি এক লিখিত মন্তব্যে ভিওএ-কে বলেছেন, "আফগানিস্তানে পশ্চিমা দখলদারিত্ব সত্যিই মানব ইতিহাসের একটি জঘন্য মুহূর্ত এবং প্রিন্স হ্যারির মন্তব্যগুলি দখলদার বাহিনীর হাতে আফগানদের অনুভূত আঘাতের কেবল একটি ক্ষুদ্র অংশ, যারা কোনো জবাবদিহিতা ছাড়াই অগণিত নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করেছে।"

আত্মজীবনীতে ২৫ জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে হ্যারিকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, “এই কাজ করার জন্য আমি গর্বিত নই, আবার লজ্জিতও নই”।

৩৮ বছর বয়সী ডিউক অব সাসেক্স আফগানিস্তানে ২০১২ সালে তালিবানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তার দ্বিতীয় দফায় দায়িত্ব পালন করার সময় ওই বিদ্রোহীদের হত্যা করেন। সে সময় তিনি অ্যাপাচি হেলিকপ্টারের সহ-পাইলট হিসাবে ছয়টি যুদ্ধ মিশন পরিচালনা করেন।

আনাস হাক্কানি নামে একজন কেন্দ্রীয় তালিবান নেতা টুইট করেছেন, "মিস্টার হ্যারি! আপনি যাদের মেরেছিলেন, তারা দাবার গুটি ছিল না, তারা ছিল মানুষ; তাদের পরিবার ছিল, যারা তাদের ফিরে আসার অপেক্ষায় ছিল। আফগানদের হত্যাকারীদের মধ্যে, অনেকেই আছেন যাদের নীতিবোধ প্রকাশ করার এবং তাদের যুদ্ধাপরাধের কথা স্বীকার করার কোনও শালীনতা নেই।"

ব্রিটিশ মিডিয়া এবং সাবেক সেনা কর্মকর্তাদেরও রোষানলে পড়েন হ্যারি। তারা এটিকে রাজপুত্রের দায়িত্বজ্ঞানহীন প্রকাশ হিসাবে তীব্র নিন্দা করেন। তাদের আশংকা এতে তার ব্যক্তিগত নিরাপত্তাকে বিপন্ন করতে পারে, সেই সাথে বিদেশে দায়িত্বরত ব্রিটিশ সৈন্যরাও তালিবানের প্রতি সহানুভূতিশীলদের দ্বারা প্রতিশোধের শিকার হতে পারে।

হ্যারির আত্মজীবনী আগামী ১০ জানুয়ারী ব্রিটেনে প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। তবে আত্মজীবনীর স্প্যানিশ সংস্করণ ৫ জানুয়ারী স্পেনের বার্সেলোনায় বইয়ের তাকগুলিতে প্রদর্শিত হয়৷

XS
SM
MD
LG