অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইজতেমা উপলক্ষে ট্রাফিক নির্দেশনা জারি করেছে গাজীপুর সিটি পুলিশ


ইজতেমা উপলক্ষে ট্রাফিক নির্দেশনা জারি করেছে গাজীপুর সিটি পুলিশ। (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশে চলমান বিশ্ব ইজতেমায় আগতদের ভোগান্তি কমাতে, যানবাহন চলাচলের বিষয়ে কিছু নির্দেশনা জারি করেছে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি)। চলমান বিশ্ব ইজতেমাকে কেন্দ্র করে গাজীপুরের কয়েকটি সড়কে অন্তত ছয় ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।

শনিবার (১৪ জানুয়ারি) ইজতেমা স্থলে স্থাপিত পুলিশ কন্ট্রোল রুমে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জিএমপি কমিশনার মোল্লা নজরুল ইসলাম এ তথ্য জানান। তিনি জানান, রবিবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে মুসল্লিরা আখেরি মোনাজাতে (আখেরি মোনাজাতে) যোগদান করবেন। এ কারণে যান চলাচল ঢেলে সাজানো হয়েছে।

তিনি বলেন, “শনিবার দুপুর ১২টা থেকে এই ব্যবস্থা কার্যকর হয়েছে। আখেরি মোনাজাত (রবিবার সকাল) পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী থেকে ভোগড়া বাইপাস, খামারপাড়া সড়ক, আশুলিয়া সড়কের আবদুল্লাহপুর থেকে বাইপাইল পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।”

শুক্রবার সকালে শুরু হওয়া বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব রবিবার সকালে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে। আগামী ২০-২২ জানুয়ারি দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে একই স্থানে।

বিশ্ব ইজতেমায় এ পর্যন্ত ৭ জন মারা গেছেন

টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে বার্ধক্যজনিত কারণে শুক্রবার রাত ও শনিবার সকালে আরও চার মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।গাজীপুর মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জিসানুল হক বলেন, “এ পর্যন্ত সাতজন ইজতেমা স্থলে মারা গেছেন।”

মৃত ব্যক্তিরা হলেন; সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার মো. নুরুল হক (৬৩), গাজীপুরের সদর উপজেলার আবু তৈয়ব ওরফে আবু তালেব (৯০), ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার হাজী মোহাম্মদ হাবিবউল্লাহ হবি (৬৮), খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার মোফাজ্জেল হোসেন খান (৭০), মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার আক্কাস আলী সিকদার (৫০), চট্টগ্রামের সদর উপজেলার আব্দুল রাজ্জাক (৭০) এবং নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার হাবিবুর রহমান হবি (৭০)।

এদের মধ্যে নুরুল হক ও আবু তৈয়ব বৃহস্পতিবার বার্ধক্যজনিত জটিলতায় মারা যান। শুক্রবারে শ্বাসকষ্টজনিত কারণে মারা যান হাবিবউল্লাহ, মোফাজ্জেল ও আক্কাস। আর, শনিবার সকালে রাজ্জাক ও হাবিবুর বার্ধক্যজনিত জটিলতায় মারা যান।

XS
SM
MD
LG