অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

করোনাকালে বাংলাদেশে ইন্টারনেট স্বাধীনতা সংকুচিত হয়েছে


বাংলাদেশে ইন্টারনেট স্বাধীনতা আরও সংকুচিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ফ্রিডম হাউস এক রিপোর্টে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেছে। বলেছে, করোনাকালে দেশজুড়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার বেড়েছে। এছাড়া ভুয়া তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে ৫০টি ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। গত বছরের জুন থেকে চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত বিশ্বের ৬৫টি দেশে জরিপ চালিয়ে সংস্থাটি বলেছে, গত এক বছরে দুই পয়েন্ট পিছিয়েছে বাংলাদেশ। তিনটি বিষয়ে পয়েন্ট দিয়ে থাকে ফ্রিডম হাউস। এরমধ্যে রয়েছে ইন্টারনেট প্রবেশাধিকার সীমাবদ্ধতা, কন্টেন্ট বা বিষয়বস্তু প্রকাশে সীমাবদ্ধতা ও ব্যবহারকারীর অধিকার লঙ্ঘন। এই তিন বিভাগে বাংলাদেশ পিছিয়েছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত, শ্রীলংকাসহ ২৯টি দেশে ইন্টারনেট ব্যবহার আংশিক স্বাধীন। পাকিস্তান, চীন, কিউবা, ইথিওপিয়াসহ ২২টি দেশে ইন্টারনেট স্বাধীনতা একেবারেই নেই। স্বাধীনতা রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা, জাপান, ইতালি, জার্মানিসহ ১৫টি দেশে। বাংলাদেশ প্রসঙ্গে রিপোর্টে বলা হয়, রোহিঙ্গা শিবিরে কর্তৃপক্ষ ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে। এমনকি তাদের কাছে সিম বিক্রিও বন্ধ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একটি অনুসন্ধানী সংবাদমাধ্যমও বন্ধ করে দেয়া হয় করোনাকালে। ফ্রিডম হাউস এটাও বলেছে, বাংলাদেশে তাদের জরিপ চলাকালে অনলাইন কার্যক্রম সংশ্লিষ্ট কারণে শারীরিক সহিংসতার একাধিক ঘটনাও পরিলক্ষিত হয়েছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:18 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG