অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জনসংখ্যার অনুপাতে করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার হার নিতান্তই কম


BD Corona

করোনা ভাইরাসের টেস্টের ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশের নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা আরও সীমিত হয়ে আসতে পারে বলে আশঙ্কার সৃষ্টি হয়েছে।

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যে ৭৪ টি করোনা ভাইরাসের নমুনা সংগ্রহের বুথ পরিচালনা করে আসছিল সেগুলোর বিষয়ে সরকারের সাথে তাদের যে চুক্তি হয়েছিল তার মেয়াদ ৩১শে অগাস্ট শেষ হয়ে যাবে। চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো না হলে এবং এগুলো পরিচালনার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ পাওয়া না গেলে এসকল নমুনা সংগ্রহের বুথ বন্ধ করে দেয়ার বিষয়ে ব্র্যাকের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন দেশে এমনিতেই জনসংখ্যার অনুপাতে করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার হার নিতান্তই কম।তাঁরা আশংকা প্রকাশ করেছেন সাধারণ মানুষের হাতের নাগালের মধ্যে থাকা এসকল বুথ বন্ধ হয়ে গেলে তা হবে করোনার নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে একটি অন্তরায়। তাঁদের মতে এর ফলে দেশে করোনা সংক্রমণের মাত্রা নির্ধারণ করা আরও কঠিন হয়ে পড়বে এবং একই সাথে স্বাস্থ্য ঝুঁকিও বাড়বে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন মোতাবেক বাংলাদেশে যে হারে নমুনা পরীক্ষা হওয়ার কথা তা হচ্ছে না বলে উল্লেখ করে বিশেষজ্ঞরা বলছেন দিনে ১০-১২ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে দেশে করোনা রোগের ব্যাপকতা নিরূপণ করা কঠিন। তাঁরা বুথেরে সংখ্যা আরও বৃদ্ধি এবং দেশব্যাপী বিস্তৃত করে দৈনিক অন্তত ২০-২৫ হাজার নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দিয়েছেন। ব্র্যাকের বুথ গুলোর দায়িত্বে থাকা সংস্থাটির সহযোগী পরিচালক মোর্শেদা চৌধুরীর কাছে তাঁদের পরিচালিত বুথ বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ভয়েস অফ অ্যামেরিকাকে বলেন অর্থের যোগান পাওয়া গেলে এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাথে তাদের চুক্তি নবায়ন হলে তারা বুথগুলো আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত সচল রাখাবেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেছেন ব্র্যাকের বুথগুলো যেন বন্ধ না হয়, সে বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। এছাড়া নমুনা পরীক্ষা বাড়ানোর জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করছে বলে সরকারি সংস্থাটির সূত্রে জানা গেছে। উল্লেখ্য, দক্ষিণ এশিয়ায় করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে ভারত এবং বাংলাদেশের অবস্থান সর্ব নিম্ন স্থানে থাকা আফগানিস্তানের এক ধাপ উপরে।

এদিকে, সরকারি হিসেবে গত এক দিনে বাংলাদেশে করোনা রোগীর সংখ্যা আড়াই লাখ ছাড়িয়েছে। শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক বুলেটিন অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ২৭ জন করোনা রোগী মারা গেছেন এবং ১২৬৯৯ টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৮৫১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর ফলে দেশে এ পর্যন্ত ৩৩৩৩ জন করোনা রোগী মারা গেলেন এবং মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৫২,৫০২ জন। বুলেটিনে বলা হয় এ যাবত ১৪৫,৫৮৪ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন।

please wait

No media source currently available

0:00 0:03:43 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG