অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ঢাকায় তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকরা বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন


বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্থানে তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকরা তাদের বেতন ভাতার দাবিতে বুধবারও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। সরকারের তরফে ১৬ই এপ্রিলের মধ্যে পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের বেতন ভাতা পরিশোধের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা দাবি করেছেন, দেশের প্রায় ৩৭টি কারখানার কমপক্ষে দশ হাজার শ্রমিককে ছাটাই করা হয়েছে।
শ্রমিকদের সংগঠনের নেতারা শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহালের দাবি জানিয়ে এ বিষয়ে সরকারের হস্তক্ষেপের আহ্বান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর কারনে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের বিভিন্ন বিদেশী ব্রান্ডের ক্রেতারা এ পর্যন্ত ৩০০ কোটি অ্যামেরিকান ডলারের ক্রয়াদেশ বাতিল করেছে। বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ তৈরি পোশাক রফতানি কারক দেশ এবং দেশেটির মোট রফতানি আয়ের ৮০শতাংশের
বেশি এ খাত থেকেই আসে।
এদিকে, আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিল বা আইএমএফ করোনা ভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারীর কারনে বাংলাদেশের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে যাওয়ার পূর্বাভাষ দিয়েছে।
বুধবার সংস্থাটির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক আউটলুক প্রতিবেদনে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাষে বলা হয়েছে, চলতি অর্থ বছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে ২ শতাংশ যদিও দেশটি বছরের শুরুতে তাদের প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছিল ৮ শতাংশের ওপর। এর আগে আইএমএফ এ সময়ে প্রবৃদ্ধি শতকরা ৭ ভাগ অর্জিত হবে বলে পূর্বাভাষ দিয়েছিল। তবে রিপোর্টে কিছুটা আশার বাণী শোনানো হয়েছে যাতে বলা হয়েছে, আগামী অর্থ বছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়াতে পারে শতকরা ৯.৫ ভাগ। কয়েকদিন আগে বিশ্বব্যাংকও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে পূর্বাভাষ দিয়েছে যাতে বলা হয়েছে করোনা ভাইরাসের কারণে চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশে শতকরা ২ থেকে ৩ ভাগ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হতে পারে।
please wait

No media source currently available

0:00 0:02:00 0:00
সরাসরি লিংক



XS
SM
MD
LG