অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে শর্ত সাপেক্ষে কলকারখানা খোলা রাখার অনুমতি দিল সরকার


বাংলাদেশে লকডাউনের মধ্যেই আবারো সকল কলকারখানা খোলা রাখার অনুমতি দিয়েছে সরকার। শ্রমিকদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করে ওষুধ, উৎপাদন ও রপ্তানিমুখি শিল্পসহ সকল কারাখানা খোলা যাবে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে সরকারি এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

এর আগে একই শর্তে গার্মেন্টস কারখানা খোলার সিদ্ধান্ত দিয়েছিল সরকার। তড়িঘড়ি ঐ সিদ্ধান্তের পর নানা দুর্ভোগ স্বীকার করে শ্রমিকরা কর্মস্থলে হাজির হয়েছিলেন। তখন ব্যাপক সমালোচনার মুখে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়। পরে নানা ঝুঁকি নিয়ে শ্রমিকদের অনেকেই আবার বাড়ি ফিরে যান।

কারখানা চালুর বিষয়ে ভিন্নমত পোষণ করেছে সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি)। তারা বলেছে, কারখানা চালু ও খোলা রাখা নিয়ে সরকারসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগে সমন্বয়হীনতা রয়েছে। এর সমাধান না হলে শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়বে। পোশাক কারখানায় আদৌ সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা যাবে কিনা তা নিয়ে তাদের সংশয় রয়েছে। এই অবস্থায় শ্রমিকদের কাজে যোগ না দেয়াই হবে সঠিক সিদ্ধান্ত। বিজিএমইএ জানিয়েছে, করোনার কারণে এ পর্যন্ত সাড়ে তিনশো কোটি ডলারেরও বেশি রপ্তানি আদেশ বাতিল হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়নি কবে থেকে নতুন এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। আগামী ৫ই মে পর্যন্ত সরকারি ছুটি বাড়ানোর প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ছুটিকালীন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা যাবে না। সীমিত পরিসরে গুরুত্বপূর্ণ ১৮ টি মন্ত্রণালয় কার্যক্রম চালাতে পারবে।

ওদিকে বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ বুলেটিনে জানানো হয়েছে, এ পর্যন্ত ৫৮ টি জেলায় করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে। নতুন করে আরো ৪১৪ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৭ জন।

তথ্য গোপন করে বারডেম হাসপাতালের আইসিইউতে একজন রোগী ভর্তি হওয়ার পর সেখানে থাকা আরো তিনজন রোগী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আইসিইউ'টি লকডাউন করে দেয়া হয়েছে।

পুলিশ সদরদপ্তর থেকে বলা হয়েছে এ পর্যন্ত ২১৮ জন পুলিশ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের তিনটি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেয়া হবে।

ভিআইপিদের করোনা চিকিৎসার জন্য আলাদা হাসপাতাল হচ্ছে এমন খবরে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে গত কয়েকদিন ধরে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক অবশ্য জানিয়েছেন, এ ধরণের কোন পরিকল্পনা সরকারের নেই।

করোনা পরিস্থিতিতে সহায়তা দিতে বাংলাদেশে সেনাবাহিনীর একটি টিম পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে ভারত। সংবাদসংস্থা পিটিআই এর বরাতে এই খবর প্রকাশের পর বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বলেছেন ভারতের সঙ্গে এ নিয়ে এখনো কোন আলোচনা হয়নি।

XS
SM
MD
LG