অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশ-ভারতের অমীমাংসিত ইস্যুগুলো সমাধান জরুরিঃ ভারতের পররাষ্ট্র সচিব শ্রিংলা


ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। (ফাইল ফটো)

ঢাকা সফররত ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের চিন্তায় বড় কোনো পার্থক্য নেই। দুই দেশের সম্পর্কের যে সোনালি অধ্যায় চলছে, সেটিকে এগিয়ে নিতে আরও কীভাবে সহযোগিতা বাড়ানো যায় সে নিয়েই আলোচনা চলছে। আজ ঢাকার ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন। এ বৈঠক নিয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন জানান, প্রায় পৌনে এক ঘণ্টার দ্বিপক্ষীয় বৈঠক চলমান সম্পর্কের এগিয়ে নিতে সহযোগিতার নতুন ক্ষেত্র নিয়ে আলোচনা হয়েছে। গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে দুই দেশের চলাচলে সড়ক ও রেলের পাশাপাশি নৌপথে চলাচল নিয়ে।

দুই দিনের সফরের হর্ষবর্ধন শ্রিংলা ঢাকায় ব্যস্ততম সময় অতিবাহিত করেন। সকালে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে স্বাগত জানান পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। পরে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তারা দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তিস্তা পানি বণ্টন এবং সীমান্ত আরও কীভাবে নিরাপদ করা যায় তা নিয়ে কথা বলা হয়। ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, দুই দেশের অমীমাংসিত ইস্যুগুলো সমাধান জরুরি। এই মুহূর্তে দুই দেশের সম্পর্ক অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশি দৃঢ়। বিশেষ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতার কারণেই তা সম্ভব হয়েছে। দুপুরে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠক শেষে তার আমন্ত্রণে এক মধ্যহ্নভোজে যোগ দেন। এতে সমাজের বিভিন্ন স্তরের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন।

ভারতের পররাষ্ট্র সচিব পরে পৃথকভাবে বৈঠকে অংশ নেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এবং আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে। উভয় বৈঠকে বাংলাদেশ ও ভারতের মাঝে বিদ্যমান সুসম্পর্ককে আরও দৃঢ় করা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। রাতে হর্ষবর্ধন শ্রিংলা তাঁর ঘনিষ্ঠ বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে কথা বলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের বর্তমান হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে। আগামীকাল ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সাক্ষাৎ করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। এই বৈঠকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হবে ভারত সফরের জন্য। ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে প্রধান অতিথি করা হবে। অন্যদিকে ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ আগামী ১৫ ডিসেম্বর ঢাকা সফরে আসছেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

উল্লেখ যে, হর্ষবর্ধন শ্রিংলা এর আগে বাংলাদেশে তাঁর দেশের হয়ে হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে কাল দিল্লি ফিরে যাবেন।

XS
SM
MD
LG