অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাইবেল বর্ণিত বেথলেহেম শহরে বড়দিনের আনন্দ ম্লান করেছে করোনা


বেথেলেহেমর গীর্জায় বড় দিন উদযাপন ২৪শে ডিসেম্বর ২০২১ রয়টার

বাইবেলে বর্ণিত বেথলেহেম শহর করোনাভাইরাসের আবহে এ নিয়ে দ্বিতীয় বারের মত বড়দিনের আগের সন্ধ্যা ‘ক্রিসমাস ইভ’ উদযাপিত হল। শুক্রবার সেখানে তেমন একটা ভিড় ছিল না, আবহাওয়া ছিল ধূসর এবং বিষণ্ণ যা ঐতিহ্যবাহী যীশুর জন্মস্থানের উদযাপনকে ম্লান করে দিয়েছে।

প্রায় সমস্ত আগমনকারী বিমান চলাচলের উপর ইসরাইলের নিষেধাজ্ঞা জারি করা ছিল। বিদেশী দর্শার্থীদের অধিকৃত পশ্চিম তটে যাবার জন্য প্রবেশপথ এ নিয়ে পর পর দ্বিতীয় বছরের মত বন্ধ ছিল। এই নিষেধাজ্ঞার উদ্দেশ্য অত্যন্ত সংক্রামক ওমিক্রনের দ্রুত বিস্তার রোধ করা যার কারণে বিশ্বজুড়ে বড়দিন উদযাপন ব্যাহত হচ্ছে ।

এর পরিবর্তে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ পবিত্র ভূমিতে খ্রীষ্টান সম্প্রদায়ের ক্ষুদ্র একটি দলকে দিয়ে আনন্দের অনুভূতিকে জাগিয়ে তোলে।

এই একই অবস্থা বিশ্বজুড়ে দেখা যাচ্ছে যে উত্সব-প্রিয় লোকজন প্রায় দু’বছরের লকডাউন এবং সুরক্ষার বিধিনিষেধে ক্লান্ত হয়ে, পুরোনো প্রথা পুনরুজ্জীবিত করার এবং প্রিয়জনদের সাথে নিরাপদে উদযাপন করার উপায় সন্ধান করছেন।

জার্মানীর কোলনের এক গীর্জার পক্ষ থেকে একটি বিশেষ বড় দিনকে উপলক্ষক্য করে টিকা প্রদানের আয়োজন করে। ফিলিপাইনে বড়দিনের শেষ মুহুর্তের কেনাকাটার সময় লোকজন মাস্ক পরেছেন এবং ফ্রান্সে হাসপাতালের কর্মীরা একটি নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে ক্রিসমাস ট্রি সাজান। অনেক দেশেই মাস্ক পরার আদেশ এবং লকডাউন উদযাপনকে নিয়ন্ত্রিত করে এবং হাসপাতাল রোগীদের দ্বারা পূর্ণ ছিল।

বেথলেহেমের মেয়র আন্তন সালমান বলেন, শহরটি আশা করেছিল যে ২০২১ সালের বড়দিন উদযাপন গত বছরের চেয়ে ভাল হবে এমনকি স্থানীয় বাসিন্দারাও লকডাউন নিষেধাজ্ঞার কারণে বাড়িতেই ছিলেন। বেথেলেহেম এ বছর তাদের বড়দিনের ঐতিহ্যবাহী বাজনাসহ মিছিল এবং রাস্তায় উৎসব উদযাপনের পরিকল্পনা করেছিল।

XS
SM
MD
LG