অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মহামারীতে স্কুল বন্ধ থাকায় বিশ্বের প্রায় ১২ কোটি শিক্ষার্থী ঘরে বসে আছে: ইউনিসেফ


যুক্তরাষ্ট্রের ইউটাতে ক্লাস শুরুর প্রথম দিন স্কুলে যাচ্ছে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর দুই শিক্ষার্থী

দেড় বছর আগে শুরু হওয়া করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে বিশ্বব্যাপী ১১ কোটি ৭০ লাখ শিক্ষার্থী এখনও বিদ্যালয়ের বাইরে রয়েছে বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা, ইউনেস্কো বলেছে, এখনও ক্লাসরুমে ফিরে আসেনি, বিশ্বব্যাপী এমন শিক্ষার্থী মোট ছাত্রসংখ্যার প্রায় ৭.৫%।

ইউনেস্কোর সহকারী মহাপরিচালক, স্টেফানিয়া জিনিনি বলেন, আমরা জানি যে যত বেশিদিন স্কুল বন্ধ থাকবে, শিশুদের পড়ালেখার ওপর তত বেশি প্রভাব পড়বে, যা পরে পুষিয়ে নেয়া সম্ভব নয়, বিশেষ করে দুর্বল এবং প্রান্তিক শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে।

জিনিনি বলেন, এটি "উত্সাহজনক" যে অনেক সরকার নিরাপদে স্কুলগুলি পুনরায় খোলার জন্য কাজ করছে। কিন্তু, "আমাদের সর্বোচ্চ ও জরুরি লক্ষ্য, অবশ্যই সকল শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বত্র স্কুল পুনরায় চালু করা।"

ইউনেস্কো বলছে, বর্তমানে ১১৭টি দেশে স্কুল সম্পূর্ণরূপে পুনরায় খোলা হয়েছে, এতে করে বিশ্বের প্রাক-প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক স্তরের ৩৫% শিক্ষার্থী তাদের শ্রেণীকক্ষে ফিরে যেতে পেরেছে। এর আগে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে, বিশ্বের ১৯৫টি দেশের মধ্যে মাত্র ৯৪টি দেশের স্কুল পুনরায় চালু হলে, মাত্র ১৬% শিক্ষার্থী পাঠদানের আওতায় আসে।

সংস্থাটি বলেছে, দীর্ঘ সময় এবং বারবার স্কুল বন্ধ থাকার কারণে, শিক্ষার্থীরা শেখার সুযোগ বঞ্চিত হয়েছে এবং স্কুল থেকে ঝরে পড়ার হার বৃদ্ধি পেয়েছে। যে কারণগুলি "সবচেয়ে দুর্বল শিক্ষার্থীদের ওপর অসমভাবে" বিরূপ প্রভাব ফেলেছে।

ইউনেস্কো বলছে, এর প্রতিকার হিসেবে ও হাইব্রিড শিক্ষা, শিক্ষকদের সহায়তা এবং ডিজিটাল বিভাজন দূর করা জোরালো শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

সংস্থাটি আরও বলছে, তারা সরকারগুলিকে স্কুল পুনরায় চালু করতে এবং শিক্ষার্থীদের "ক্ষতি পুষিয়ে নিতে" সহায়তা করার লক্ষ্যে জাতিসংঘ শিশু তহবিল এবং বিশ্বব্যাংকের সাথে কাজ করছে।

XS
SM
MD
LG