অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীদের মধ্যে প্রথম বিতর্ক অনুষ্ঠিত


মঙ্গলবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীদের মধ্যে প্রথম বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। বেশীরভাগ বিশ্লেষক মনে করছেন এই বিতর্কে, পার্টির দুই অগ্রগণ্য প্রার্থী হিসেবে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারী ক্লিন্টন এবং ভারমন্ট রাজ্যের সেনেটার বার্নি স্যাণ্ডার্স তাদের প্রাধান্য বজায় রাখেন।

এ বিষয়ে ভয়েস অফ আমেরিকার বিভিন্ন প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এখন ফ্লোরিডায় ডঃ জিল্লুর রহমান খানের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করছেন সেলিম হোসেন

সরাসরি লিংক

প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারী ক্লিন্টন, সেনেটার বার্নি স্যাণ্ডার্স, মেরীল্যাণ্ড রাজ্যের প্রাক্তন গভর্ণর মার্টিন ও’মালি, ভার্জিনিয়ার প্রাক্তন সেনেটার জিম ওয়েব আর রোড আইল্যাণ্ড রাজ্যের সাবেক গভর্ণর লিংকন চ্যাফি বিতর্কে অংশ নেন।

টেলিফোনে আমার সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন ডঃ জিল্লুর রহমান খান। আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি।

যেমনটি ধারণা করা হয়েছিল, হিলারী ক্লিন্টনের ই-মেল, বেনগাযি প্রসঙ্গ থেকে নিয়ে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির পররাষ্ট্র নীতি ও অভিবাসন বিষয়ে প্রশ্ন আসবে। ডঃ খান আপনার প্রাথমিক ধারণাটা কি?

পররাষ্ট্র নীতির ক্ষেত্রে সিরিয়ায় বিমান উড্ডয়ন নিষিদ্ধ এলাকা বলবৎ করে, রাশিয়াকে ওই অঞ্চলে অন্য সকলের সঙ্গে মিলে একটা রাজনৈতিক সমাধানের চেষ্টায় সংশ্লিষ্ট করার উল্লেখ করে ক্লিন্টন বলেছেন ১ –

‘আমি মনে করি যুক্তরাষ্ট্র পুটিনের কাছে একথা স্পষ্টভাবে তুলে ধরবে যে সিরিয়ায় আরও সংকট সৃষ্টি করা, আসাদের পক্ষে সেখানে বোমাবর্ণ করাটা গ্রহণযোগ্য নয়’।

সেনেটার স্যাণ্ডার্স বলেন তিনি মনে করেন যে, রাশিয়া, সিরিয়ায় সম্প্রতি যে ধরণের কার্যব্যবস্থা নিয়েছে সেটা যে সঠিক হয়নি পুটিন সে কথা উপলব্ধি করবেন। তিনি বলেন,

২ ‘আমার ধারণা এখন তিনি কেবল তার মুখরক্ষা করছেন। তবে আমি মনে করি রাশিয়ানরা যখন সিরিয়ায় প্রান হারাবে এবং তাকে পিছু হটতে হবে তখন রাশিয়ানরাই তার প্রতি এই বার্তা পাঠাবে যে তাদের ফিরে যেতে হবে, এবং পরিস্থিতি সংশোধনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ করতে হবে’।

অভিবাসন বিষয়ে অবৈধ অভিবাসীদের সুযোগ সুবিধা, স্কুল কলেজে তাদের সন্তানদের শিক্ষার সুবিধা সম্পর্কেও প্রশ্ন ছিল।

XS
SM
MD
LG