অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত ও পাকিস্তান এক ব্যতিক্রমী সমঝোতায় পৌঁছুলো


India

ভারত ও পাকিস্তান ২০০৩ সালের সন্ধি পুণর্বহাল করে অবিলম্বে সামরিক বৈরিতা বন্ধ করতে সম্মত হয়েছে যাতে করে দক্ষিণ এশিয়ার পরমাণু অস্ত্রধারী বৈরি রাষ্ট্রদুটির মধ্যকার উত্তেজনা হ্রাস করা যায়। আজই এক যৌথ বিবৃতিতে দু টি দেশ বলেছে যে তাদের শীর্ষ সামরিক কমান্ডাররা হটলাইন যোগাযোগ মাধ্যমে কথা বলেছেন এবং খোলামেলা ভাবে আন্তরিক পরিবেশে, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কাশ্মিরকে বিভাজনকারী নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন।

ভারত ও পাকিস্তান ২০০৩ সালের সন্ধি পুণর্বহাল করে অবিলম্বে সামরিক বৈরিতা বন্ধ করতে সম্মত হয়েছে যাতে করে দক্ষিণ এশিয়ার পরমাণু অস্ত্রধারী বৈরি রাষ্ট্রদুটির মধ্যকার উত্তেজনা হ্রাস করা যায়। আজই এক যৌথ বিবৃতিতে দু টি দেশ বলেছে যে তাদের শীর্ষ সামরিক কমান্ডাররা হটলাইন যোগাযোগ মাধ্যমে কথা বলেছেন এবং খোলামেলা ভাবে আন্তরিক পরিবেশে, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কাশ্মিরকে বিভাজনকারী নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে উভয় পক্ষই সম্মত হয়েছে যে ২৪ও ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত থেকে তারা নিয়ন্ত্রণ রেখা এবং অন্যান্য ক্ষেত্রেও সকল চুক্তি ও সমঝোতা মেনে চলবে এবং অস্ত্র বিরতি পালন করবে। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে পারস্পরিক লাভজনক ও টেকসই শান্তি অর্জনের স্বার্থে দু পক্ষই পরস্পরের মূল বিষয় এবং উদ্বেগগুলোর দিকে নজর রাখবে যে সব উদ্বেগের কারণে শান্তি বিঘ্নিত হওয়া এবং সহিংসতা শুরু হবার আশংকা থেকে যায়। তবে এই বিবৃতিতে বিস্তারিত আর কিছু বলা হয়নি।

ভারতীয় ও পাকিস্তানি কমান্ডাররা তাঁদের সংলাপে যে কোন উহ্য পরিস্থিতি কিংবা ভুল বোঝাবুঝির অবসানের লক্ষ্যে তাদের সীমান্ত নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠকসহ চলমান দ্বিপাক্ষিক ব্যবস্থা অনুযায়ী চলার কথাও বলেন। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরায়শি এই সমঝোতাকে আঞ্চলিক শান্তিকে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেন । ভারতীয় বিশ্লেষকরাও এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন।

XS
SM
MD
LG