অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে ভুয়ো খবর বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি, সরকার প্রত্যাহার করেছে


Modi

ভারতে, সারা দেশের মধ্যে জাল বা ভুয়ো খবর ছড়ালে, সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকের সরকারি স্বীকৃতি বাতিলেরবিজ্ঞপ্তি, দেশের কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রক জারি করেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্দেশে, আজই তা প্রত্যাহার করে নিল কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রক।

বিস্তারিত জানাচ্ছেন কলকাতা থেকে পরমাশিষ ঘোষ রায়।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:02 0:00

গতকালের সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে দেশের নানা মহল অসন্তোষ প্রকাশ করে মিডিয়ার ওপর খবরদারির চেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে , এবং গত চব্বিশ ঘন্টার মধ্যেই স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী এ ব্যাপারে উদ্যোগ নিয়ে বিষয়টি প্রেস কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার কাছে বিবেচনার জন্য পাঠানোর পরামর্শ দেন।প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় (পিএমও) থেকে গতকালের বিজ্ঞপ্তিটি তুলে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রককে বলে খবর , এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের কর্তারা সেই নির্দেশ পালন করেন সঙ্গে সঙ্গে।পিএমও অফিসের তরফে জানা হয়েছেকোনটা ভুয়ো খবর, সে ব্যাপার সিদ্ধান্ত নেবে অবশ্যই প্রেস কাউন্সিল ও ন্যাশনাল ব্রডকাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশন বা এনবিএ। সরকারি সূত্রের খবর, সরকারের কোনটা ভুয়ো খবর, কোনটা তা নয়, সে ব্যাপারে মাথা ঘামানো উচিত নয় বলেই মত পিএম ও অফিসের।তারই অঙ্গ হিসাবে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিরমন্ত্রক গতকালের বিজ্ঞপ্তিতে ভুয়ো খবর ছড়ানোর অপরাধে দোষী সাংবাদিকের সরকারি স্বীকৃতি সাময়িক স্থগিত রাখা থেকে পাকাপাকি বাতিলের সুপারিশ করে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর। এদিকে আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্দেশে সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞপ্তি যে বাতিল করল কেন্দ্রীয় সরকার, এব্যাপারে কলকাতার এক বিশিষ্ট সাংবাদিক সুমন ভট্টাচার্য তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।
প্রসংগত বলা যেতে পারে গতকালই কংগ্রেস নেতা আহমেদ পটেল সরকারের উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্নও তোলেন এবং জানতে চান, সরকার কি আসলে অপছন্দের খবর প্রকাশ করা থেকে বিরত রাখতে চাইছেদেশের সাংবাদিকদের।

XS
SM
MD
LG