অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রোহিঙ্গাদের দেখতে যাচ্ছেন বিদেশী কূটনীতিকরা


বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা কেমন আছেন, কি করছেন, তাদের ভবিষ্যতই কি? তা সরজমিনে দেখতে চান ঢাকায় অবস্থানরত বিদেশী কূটনীতিকরা। তাই তাদেরকে আগামী বুধবার কক্সবাজার নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী দক্ষিণ এশিয়া, দূর প্রাচ্য ও আসিয়ানের কূটনীতিকদের সঙ্গে ব্রিফিং শেষে এ তথ্য জানান। প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা এই মুহূর্তে বাংলাদেশে রয়েছেন। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নে তারা দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ভারত ও চীন আমাদের ভ্রাতৃপ্রতিম দেশ। তারা এই কঠিন সময়ে বাংলাদেশের সাথে থাকবে এটা তার বিশ্বাস। যদিও তিনি বলেছেন, দুটি দেশের পক্ষ থেকেই বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গত সপ্তাহে মিয়ানমার সফরকালে বলেছেন, সে দেশের সরকার যা করছে ঠিক করছে। এ নিয়ে ভারতসহ মুক্ত দুনিয়ায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়া হয়। পররাষ্ট্র সচিবকে প্রশ্ন করা হয়েছিল ভারতীয় অবস্থান কি তাহলে পরিবর্তন হয়েছে? জবাবে তিনি বলেন, সেটা জানা নেই। তবে আজকের বৈঠকে ভারতের তরফে বাংলাদেশের পাশে থাকার কথা বলা হয়েছে। পররাষ্ট্র সচিব জানান, কূটনীতিকদের সঙ্গে আলোচনায় কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের তাগিদ দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, অবিলম্বে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে তাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা হবে। পররাষ্ট্র সচিব জানানÑ ব্রিফিংকালে কূটনীতিকরা বলেছেন, এক মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছে বাংলাদেশ। এ অবস্থায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত বাংলাদেশের পাশে থাকা।

XS
SM
MD
LG