অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেন নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও রুশ প্রেসিডেন্টের মধ্যে ভার্চুয়াল সম্মেলন 


জুন মাসে জিনিভায় প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বৈঠক। (ফাইল ফটো- এপি)

ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার বিপুল পরিমাণ সেনা মোতায়েনের মধ্যে মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ একটি ভার্চুয়াল সম্মেলন করছেন।

পরিস্থিতি ভালো করার লক্ষ্যে প্রেসিডেন্ট বাইডেন, প্রেসিডেন্ট পুতিনের কাছে বেশ কিছু কূটনৈতিক প্রস্তাব রাখবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। একই সাথে রাশিয়ার সেনা বাহিনী তার প্রতিবেশী এবং সাবেক সোভিয়েত প্রজাতন্ত্রের কোন দেশ আক্রমণ করলে সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিষ্কার সতর্কতা দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলেছেন মস্কো ইউক্রেন সরকারের বিরুদ্ধে বড়ো ধরণের সাইবার গুজব ছড়ানোর চেষ্টা করছে যার সঙ্গে ২০১৪ সালে রাশিয়ার ক্রাইমিয়া আক্রমণ ও সংযুক্তির মিল রয়েছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা কিছু তথ্য প্রকাশ করেন যাতে বলে হয় বহুমুখি আক্রমণের লক্ষ্যে পুতিন জানুয়ারী নাগাদ ইউক্রেন সীমান্তে ১ লাখ ৭৫ হাজার সেনা মোতায়েনের পরিকল্পনা করছেন।

ধারণা করা হচ্ছে পুতিন ইউক্রেনকে যেনো সাত দশক পুরোনো যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিম ইউরোপীয় দেশগুলোর জোট নেটোতে যুক্ত হবার অনুমতি দেয়া না হয় সেই দাবী করবেন; যা বাইডেন সম্ভবত নাকচ করে দেবেন। অপরদিকে বাইডেন আন্তর্জাতিক আর্থিক পরিশোধ পদ্ধতি বা SWIFT থেকে রাশিয়াকে বাদ দেয়ার হুমকি দিতে পারেন।

সেপ্টেম্বর মাসে বাইডেন ইউক্রেনিয়ান প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকিকে হোয়াইট হাউজে আমন্ত্রণ জানান। তখন তিনি তাঁকে বলেন, “রাশিয়ার দখলদারি মনোভাবের বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”।

সোমবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি পূর্ব ডনেটস্ক অঞ্চলে সেনা বাহিনীর অবস্থা পরিদর্শন করেন এবং বলেন তার সেনা বাহিনী রাশিয়ার হামলা মোকাবেলায় সমর্থ।

XS
SM
MD
LG