অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

উত্তর কোরিয়া সাবমেরিন থেকে ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে


উত্তর কোরিয়ার পূর্ব উপকূল থেকে ছাড়া ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র খবর টিভিতে দেখছেন দক্ষিণ কোরিয়ার লোকজন - অক্টোবর ১৯, ২০২১- রয়টার্স

মঙ্গলবার সাবমেরিন-উৎক্ষিপ্ত ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার সেনা সূত্র জানিয়েছে মাত্র একমাস আগে সওল সাবমেরিন থেকে উৎক্ষিপ্ত ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পরই উত্তর কোরিয়া এই পরীক্ষা করলো।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ পর্যবেক্ষণকারী দক্ষিণ কোরিয়ার সেনা সূত্রের মতে উত্তর কোরিয়া একটি স্বল্প মাত্রার ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। ধারণা করা হচ্ছে সেটি পূর্ব উপকূল থেকে স্থানীয় সময় ১০.১৭ মিনিটে সাবমেরিন থেকে উৎক্ষিপ্ত ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র।

দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়নহাপ বার্তা সংস্থার মতে ক্ষেপণাস্ত্রটি সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার উচ্চতায় প্রায় ৪৩০ থেকে ৪৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত পৌঁছায়।

দক্ষিণ কোরিয়া একটি উচ্চাকাঙ্ক্ষী প্রতিরক্ষা আধুনিকায়ন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে যাতে থাকছে বেশ কয়েকটি নতুন ক্ষেপণাস্ত্র, স্থানীয়ভাবে নির্মিত জঙ্গি বিমান, এবং এমনকি দেশটির প্রথম বিমান বহনকারী বিমান।

দক্ষিণ কোরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ২৮ হাজারেরও বেশী সেনা সদস্য অবস্থান করলেও দক্ষিণ কোরিয়ার সেনা বাহিনী নিজেদের প্রতিরক্ষার জন্যে বেশী বেশী দায়িত্ব নিজেরাই নিজেদের কাঁধে নেয়ার চেষ্টা করছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন একই সঙ্গে তারা আঞ্চলিক বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে চাইছেন

তবে নিজেদের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করার পরও দক্ষিণ কোরিয়ার এই প্রয়াসকে উস্কানিমূলক এবং অস্থিতিশীল বলে অভিযোগ করছে উত্তর কোরিয়া। যুক্তরাষ্ট্রসহ দক্ষিণ কোরিয়ার মিত্রদেরকে দ্বৈত নীতি নেয়ার অভিযোগ তুলেছে উত্তর কোরিয়া।

পিয়ংইয়ং পরিচালিত অবৈধ পারমাণবিক কর্মসূচীর শাস্তি স্বরূপ জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উত্তর কোরিয়ার জন্যে স্বল্প বা দূরপাল্লার সকল ধরণের ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিষিদ্ধ।

সাবমেরিন থেকে উৎক্ষিপ্ত ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উত্তর কোরিয়ার অস্ত্রভাণ্ডারে যুক্ত করবে একটি শক্তিশালী উপাদান। কারণ তা গতিময়- সচল, যা উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ভাণ্ডারের পরিসর আরও বাড়াবে। এগুলো লুকানোও সহজ।

উত্তর কোরিয়া সর্বশেষ সাবমেরিন-উৎক্ষিপ্ত ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে ২০১৯ সালের অক্টোবরে। তারা তখন পানির নিচের একটি স্থান থেকে পুকগুকসং-৩ নামের একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছিল। তবে দেশটি এমনটি কখনোই প্রদর্শন করেনি যে তারা সত্যিকারের সাবমেরিন-উৎক্ষিপ্ত ব্যালিষ্টিক ক্ষেপণাস্ত্র চালাতে সক্ষম।

দক্ষিণ কোরিয়ার বার্তা সংস্থা ইয়নহ্যাপের মতে উত্তর কোরিয়া এমন একটি সময়ে ক্ষেপনাস্ত্র পরীক্ষা করলো যখন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান এবং দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দা প্রধানরা সওলে বৈঠক করছেন।

উত্তেজনা হ্রাস এবং পারমাণবিকীকরণ থেকে বেরিয়ে আসার লক্ষ্যে দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়াকে বারবার আলোচনা শুরু করার অনুরোধ জানালেও উত্তর কোরিয়া তাতে সাড়া দেয়নি।

গত সপ্তাহে উত্তর কোরিয়ার প্রধান কিম জং ঊন আলোচনার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

XS
SM
MD
LG