অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমারের সহিংসতায় সাহায্যদাতা গ্ৰুপের দুজন কর্মী নিহত 


কারেনি জাতীয়তাবাদী প্রতিরক্ষা বাহিনী (কেএনডিএফ) প্রকাশিত ছবিতে মিয়ানমারের কায়াহ রাজ্যের হোপরুসো শহরে আগুনে পোড়া গাড়ি থেকে ধুয়ো বেরোতে দেখা যাচ্ছে, ২৪শে ডিসেম্বর , ২০২১/কেএনডিএফ/এপি

ত্রাণ সংস্থা, সেভ দি চিলড্রেন মঙ্গলবার জানায় বড়দিনের আগের দিন হামলায় পূর্বাঞ্চলীয় মিয়ানমারে নিহতদের মধ্যে ছিলেন তাদের দুজন ত্রাণ কর্মী।

সংস্থাটি এই হামলার জন্য দেশের সামরিক বাহিনীকে দোষারোপ করেছে। ঐ হামলায় কায়াহ রাজ্যে অন্তত ৩৫জন মারা যান।

সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী, ইঙ্গার আশিং এক বিবৃতিতে বলেন,”ত্রাণ কর্মীসহ নিরীহ জনগণের বিরুদ্ধে সহিংসতা অসহনীয় এবং কান্ডজ্ঞানহীন এই হামলা আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনকে লংঘন করেছে”।

আশিং বলেন, "এটা কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়; মিয়ানমারের জনগণকে ক্রমবর্ধমান হামলায় লক্ষ্যবস্তু করা অব্যাহত রয়েছে, অবিলম্বে এসব ঘটনার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন"।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনী জানিয়েছে তাদের বাহিনী “সন্দেহজনকভাবে” চলাচলকারী ৭টি গাড়িকে থামাবার চেষ্টা চালালে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়।সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র জ মিন তুন ফরাসি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এর ফলে এক সংঘাতে সৈন্যরাকয়েকজনকে হত্যা করে।

কারেনি জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনী নামে পরিচিত ঐঅঞ্চলের একটি সরকার বিরোধী মিলিশিয়া দল জানায় যে, যারা নিহত হয়েছেন তারা মিলিশিয়া সদস্য নন, তারা পলায়নরত অসামরিক জনগণ।

এই হামলার জবাবে সেভ দি চিলড্রেন সংস্থা জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি দেশটির বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার আবেদন জানিয়েছে।

XS
SM
MD
LG