অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আশ্রয়-প্রার্থী রোহিঙ্গাদের সংখ্যা বৃদ্ধি, বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ নাফ নদী ও বঙ্গোপাসাগরের মোহনায় নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে


A Rohingya refugee man helps children through the mud after crossing the Naf River at the Bangladesh-Myanmar border in Palong Khali, near Cox’s Bazar, Bangladesh, Nov. 1, 2017.

গত কয়েকদিন রোহিঙ্গা শরণার্থী অনুপ্রবেশ কমে আসলেও বুধবার রাত থেকে পুনরায় হঠাৎ করেই বেড়ে গেছে তাদের সংখ্যা। কক্সবাজারের উখিয়ার আনজুমানপাড়া সীমান্ত দিয়ে বৃহস্পতিবার কমপক্ষে তিন হাজার জনকে তল্লাশি শেষে বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দিয়েছে। তাদের বিভিন্ন অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। মানবিক সহায়তাকারী সংস্থার কর্মী এবং স্থানীয়রা বলছেন, আনজুমানপাড়াসীমান্তের নোম্যান্সল্যান্ডে বুধবার রাত থেকে আরও ৮ হাজারের মতো আশ্রয় প্রার্থী অপেক্ষমাণ রয়েছেন। যারা এসেছেন তাদের ভাষ্য মোতাবেক- মিয়ানমারের সেনাবাহিনীসহ অন্যান্য কর্তৃপক্ষের ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ মানসিক নির্যাতন এবং তাদের বিদেশী নাগরিক হিসেবে পরিচয়পত্র বা ন্যাশনাল ভেরিফিকেশন কার্ড বা এনভিসি কার্ড জোর করে নিতে বাধ্য করার কারণে তারা ভয়ে দেশ ছেড়ে চলে এসেছেন।
এদিকে, একের পর এক নৌ দুর্ঘটনা এড়ানো এবং তল্লাশিবিহীন অবস্থায় রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ বন্ধ করতে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ নাফ নদী এবং বঙ্গোপাসাগরের মোহনায় সকল প্রকার নৌযান চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্য পুনরায় বন্ধ ঘোষণা করেছে।এর ফলে বার্মা অংশে বাংলাদেশে আসার জন্য প্রস্তুত কয়েক হাজার রোহিঙ্গা আটকা পড়েছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে ঢাকা থেকে বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠিয়েছেন আমীর খসরু।


XS
SM
MD
LG