অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভ্যাকসিন ড্রাইভের গতি বাড়িয়েছে ভিয়েতনাম; হ্যানয়ে সপ্তাহান্তে ১০ লক্ষ টিকা প্রদান


ভিয়েতনামের হ্যানয়তে অ্যাস্ট্রাজেনেকা কোভিড ভ্যাকসিনের একটি শট গ্রহণ করেছেন একজন মহিলা

ভিয়েতনাম সরকার সোমবার জানিয়েছে, চলতি মাসের শেষ নাগাদ প্রধান প্রধান শহরগুলিতে করোনাভাইরাস-এর ফলে আরোপিত লকডাউনের সীমাবদ্ধতা শিথিল করার প্রয়াসে তাঁরা টিকা কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করছে।

গত জুলাই থেকে লকডাউনের মধ্যে থাকা রাজধানী শহর হ্যানয়তে স্বাস্থ্যকর্মীরা সারা রাত ধরে ভ্যাকসিন দিচ্ছেন।

ভিয়েতনামের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত মার্চ মাস থেকে টিকা কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকে এপর্যন্ত সেখানে প্রায় ৫৫ লক্ষ মানুষকে ভ্যাকসিন শট দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কেবল হ্যানয় শহরে এই সপ্তাহান্তে দশ লাখের বেশি ভ্যাকসিন দেওয়া হয়।

হ্যানয়ের মেয়র চু এনগক আন রবিবার বলেন, “আমাদের টিকা কার্যক্রম আরো দ্রুত করতে হবে যাতে আমরা শহরটি পুনরায় চালু করার পরিকল্পনা করতে পারি”। ৯৮ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশটিতে অর্ধেকেরও বেশি মানুষ এখনো লকডাউনের মধ্যে রয়েছে।

শহরের ৫.৭ মিলিয়ন প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ কমপক্ষে একটি করে শট পেয়েছে, কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য এই সপ্তাহের শেষ নাগাদ সেটাকে ১০০ ভাগে উন্নীত করা।

দেশের সামগ্রিক টিকা নেয়ার হার এখনো প্রায় ২৮ শতাংশ কম রয়েছে এবং মাত্র ৪ শতাংশ মানুষকে সম্পূর্ণরূপে, অর্থাৎ দুই ডোজ করে টিকা দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু ভ্যাকসিনের অভাব সাম্প্রতিক মাসগুলিতে টিকাদান কার্যক্রমকে সঙ্কুচিত করতে বাধ্য করে, এসময়ে ভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ৬ লক্ষেরও বেশি মানুষকে সংক্রমিত করে এবং মাত্র চার মাসে ১৫ হাজারের বেশি মানুষ মারা যায়।

ভাইরাস সবচেয়ে বেশি আঘাত হেনেছে দেশের ব্যবসায়িক কেন্দ্র হো চি মিন সিটিতে। সেখানে ৯৫ ভাগের বেশি প্রাপ্তবয়স্করা প্রথম টিকা পেলেও, সরবরাহ না থাকায় দ্বিতীয় ডোজের জন্য তারা এখনো অপেক্ষা করছে।

পর্যাপ্ত টিকা না থাকায় ভিয়েতনামের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ টিকা অভিযানকে ত্বরান্বিত করার জন্য ভিন্ন রকম টিকার দুই ডোজ নেয়ার অনুমতি দিয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই কৌশলটি সম্ভবত নিরাপদ এবং কার্যকর, কিন্তু গবেষকরা এখনও নিশ্চিত হওয়ার জন্য তথ্য সংগ্রহ করছেন।


ভিয়েতনাম বর্তমানে অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ফাইজার, মডার্না এবং চীনের তৈরি সিনোফার্ম ভ্যাকসিন ব্যবহার করছে।

XS
SM
MD
LG