অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সুন্দরবন রক্ষা আন্দোলনের রোডমার্চে পুলিশ দ্বিতীয় দিনের মতো বাধা দিয়েছে, লাঠিচার্জ করেছে। গণতান্ত্রিক বামমোর্চা শনিবার সকালে মাগুরা থেকে এই রোডমার্চ শুরু করেছিল। পুলিশের বাধায় বামমোর্চার কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকী, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মুশরেফা মিশুসহ ৬ জন আহত হয়েছেন। মাগুরা হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় সাইফুল হক অভিযোগ করেন, সুন্দরবন রক্ষায় তাদের মিছিল ছিল শান্তিপূর্ণ। কিন্তু পুলিশ তাদের রাইফেলের বাঁট দিয়ে পিটিয়েছে। তিনি বলেন, রামপালে যে বিদ্যুৎকেন্দ্র হতে যাচ্ছে এটা সম্পূর্ণ পরিবেশ বিরোধী। এতে করে সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে। পরিবেশবাদী আইনজীবী এড. রিজওয়ানা হাসান এই আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, এটা অত্যন্ত যৌক্তিক আন্দোলন।


পুলিশি হামলার প্রতিবাদে ঢাকায় বামমোর্চা প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। সমাবেশে বক্তারা বলেন, এভাবে পুলিশ দিয়ে হামলা করে জনমতকে উপেক্ষা করে কোনভাবেই এই দেশবিরোধী প্রকল্প বাস্তবায়ন করা যাবে না।


ঢাকা থেকে জানাচ্ছেন মতিউর রহমান চৌধুরী

XS
SM
MD
LG