অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আলাপন: প্রাকৃতিক বিপর্যয় ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা


আলাপনের আলোচ্য বিষয় ছিল "প্রাকৃতিক বিপর্যয় ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা"। আলোচনা প্যানেলে ছিলেন – ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের Disaster Management বিভাগের অধ্যাপক ডঃ মকসুদ কামাল, চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য প্রফেসার জাহাঙ্গীর আলম এবং Indian Institute of Technologyর অধ্যাপক ড. কল্যাণ কুমার রায়।

শ্রোতাদের বক্তব্য ও প্রশ্ন ছিল মুলতঃ বাংলাদেশে সাম্প্রতিক ভূমিধ্বস সম্পর্কে। তারা মনে করেন বিশদভাবে ভূমিধ্বসের কারণ ব্যাখ্যা না করে, সহজ পন্থাটি কি সে বিষয়ে আলোচনা করা হোক। অপরদিকে আলোচকরা প্রাকৃতিক দূর্যোগ, বিশেষ করে পাহাড় অঞ্চলে বসবাস করা, বাড়ীঘর তৈরী এবং বিপজ্জনক এলাকা থেকে অর্থাৎ যেখানে প্রবল বৃষ্টিপাত, পাহাড় কাটা অথবা অন্য যে কোন কারণে পাহাড়ি অঞ্চলের জনগনকে সচেতন করে তোলার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। বিপদসংকুল এলাকা থেকে লোকজনকে কেবল সরিযে নিলেই সমস্যার সমাধান হবে না, অন্য জায়গায় তাদের পুনরবাসন ও জীবিকার ব্যবস্থা করতে হবে। তারা আরও বলেন, সরকার, পৌর কর্তৃপক্ষ বা যার ওপরই যে অঞ্চলের দায়িত্ব রয়েছে, তাদেরকেই সেখানকার রক্ষণাবেক্ষণ ও জনগনকে বিপদ থেকে বাঁচানোর দায়িত্ব নিতে হবে। এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ কোন একজনের দায়িত্ব হতে পারে না। আদি পাহাড়ি বাসিন্দাদের সরিয়ে সেখানে বিত্তশালীরা ঘরবাড়ী বানিয়ে বসতি গড়ে তুলছেন অথচ ওই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে যারা বাস করেন, সেই নিম্নবিত্তরাই কিন্তু পাহাড় অঞ্চলের অবস্থা ভাল জানেন, পাহাড়ের মাটি কখন কি কথা বলতে চায় সেটা তারাই বোঝেন ভাল। ঘনবসতিপূর্ণ মহানগরী রাজধানী ঢাকাতে যেমন অগ্নিকাণ্ডের সময় দ্রুত উদ্ধার তৎপরতা শুরু হয়ে যায়, চট্টগ্রাম পার্বত্য অঞ্চলের প্রত্যন্ত এলাকায় সেটা সম্ভব হয়নি কেন? সে বিষয়েও প্রশ্ন ছিল এবং আলোচকদের বক্তব্য ছিল।

শুক্রবারের আলাপনের সঞ্চালক ছিলেন রোকেয়া হায়দার তার সঙ্গে যোগ দেন সেলিম হোসেন। আসুন শোনা যাক।

XS
SM
MD
LG