অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জঙ্গি হামলা মোকাবেলায় ভারতের বিলাসবহুল হোটেলগুলিকে প্রশিক্ষণ দেবে সিআইএসএফ


ছাব্বিশ এগারোর ধাঁচে জঙ্গি হামলার বিরুদ্ধে প্রাথমিক ভাবে লড়াই করতে দেশের বিলাসবহুল হোটেলগুলিকে প্রশিক্ষণ দেবে দেশের আধাসামরিক বাহিনী সেন্ট্রাল ইন্ডাষ্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স (সিআইএসএফ)। তাদের ঊনপঞ্চাশতম রাইজিং ডে-র আগে এই বিষয়ে সিআইএসএফ-এর তরফে একটি ব্লু প্রিন্ট তৈরি করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে একটি কনসালটেন্সি ফি নিয়ে এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে এই নিরাপত্তারক্ষী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ করা যায় গত দুহাজার আটের ছাব্বিশ এগারো মুম্বই হামলার তদন্তে নেমে গোয়েন্দারা দেখতে পান, ওই দিন তাজমহল হোটেল ও ট্রাইডেন্ট হোটেলের সিসিটিভি ক্যামেরা ও স্ক্যানার ঠিক মতো কাজ করেনি। এর ফলে নিরাপত্তায় বড়সড় ফাঁক থেকে গিয়েছিল। তারই সুযোগ নিয়ে বিস্ফোরক ও বন্দুক নিয়ে সেখানে সন্ত্রাসবাদীরা ঢুকে পড়েছিল সেদিন। সে ধরনের হামলার পরিস্থিতি যদি আবারও তৈরি হয়, তা প্রাথমিক স্তরে কীভাবে মোকাবিলা করা হবে সেই প্রশিক্ষণই দেবে সিআইএসএফ। প্রশিক্ষণে দেখানো হবে ।কনসালটেন্সি ফি বাবদ এক একটি হোটেল থেকে চার থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা নেবে সিআইএসএফ। দুহাজার আটের সালের ছাব্বিশে নভেম্বর মুম্বইয়ের আট টি জায়গায় হামলা চালায় লস্কর-ই-তইবা। হামলা চলে ছত্রপতি শিবাজি রেল স্টেশন, বিলাসবহুল তাজমহল হোটেল, ট্রাইডেন্ট হোটেল, নারিম্যান হাউজ, কামা হাসপাতাল, লিওপড ক্যাফে, মেট্রো সিনেমা ও সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজের পিছনের একটি রাস্তায়। ছাব্বিশে নভেম্বর থেকে ঊনত্রিশ নভেম্বর পর্যন্ত চলে এই হামলার ঘটনা। মৃত্যু হয় একশো চৌষট্টি জনের।

XS
SM
MD
LG