অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল পাশ হলো ভারতের সংসদে


ভারতের সংসদ (ছবি: অ্যাডোবি স্টক)

বিরোধীদের প্রবল বিরোধিতার মধ্যেই রোববার ভারতের রাজ্যসভায় পাশ হলো জোড়া কৃষি বিল।

রোববার রাজ্যসভায় বিল পেশের পরেই সম্মিলিতভাবে বিরোধিতা করে প্রায় সব বিরোধী দলই। কংগ্রেস, তৃণমূল, বামফ্রন্ট, ডিএমকে, আরজেডি, অকালি দল একসঙ্গে কেন্দ্রের এই বিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করে। এমনকি বিজেডি ও টিআরএসের মতো দলও এই বিলের বিরোধিতা করে। এই বিক্ষোভের ফলে অধিবেশন বারবার থমকে যায়। নির্ধারিত সময়ের পরেও চলে রাজ্যসভার অধিবেশন। পরে ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে যায় জোড়া কৃষি বিল।

বিল পাশের ঘটনাকে ভারতীয় কৃষি ব্যবস্থার ইতিহাসে মাইলফলক ঘটনা বলে উল্লেখ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, কৃষকদের ন্যূনতম সহায়কমূল্য দেওয়ার প্রক্রিয়া চলবে। তা বন্ধ হবে না। এদিন মোদী বলেন, "ভারতীয় কৃষি ব্যবস্থার ইতিহাসে আজ এক ঐতিহাসিক দিন। কৃষি ব্যবস্থার আমূল বদল এবং চাষিদের ক্ষমতায়নের প্রশ্নে এই বিল কার্যকরি ভূমিকা নেবে।"

যদিও এই কৃষি বিল নিয়ে ঘরে বাইরে চাপ তৈরি হয় সরকারের উপর। মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দেন এনডিএ-র অন্যতম শরিক শিরোমনি আকালি দলের নেত্রী হরসিমরত কৌর বাদল। আগামী ২৫ তারিখ সারা দেশজুড়ে আন্দোলনের ডাক দিয়েছে কৃষক সংগঠনগুলির যৌথ মঞ্চ।

বিরোধীদের বক্তব্য, "সংখ্যার জোরে কৃষকদের উপর বুলডোজার চালাতে চাইছে।" তাদের আরও বক্তব্য, "এই বিলের মাধ্যমে আসলে কর্পোরেট লুঠের পরিসরকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে সরকার।"

XS
SM
MD
LG