অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইথিওপিয়া 'সন্ত্রাসবাদ প্রচারের' অভিযোগে তিন সাংবাদিককে আটক করেছে


অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের একজন ফ্রিল্যান্স ভিডিও সাংবাদিক আমির আমান কিয়ারো এবং অন্য দুই জন  স্থানীয় সাংবাদিককে ইথিওপিয়া আটক করেছে। ছবিতে আমির আমান কিয়ারো একটি পুরোনো ছবি দেখা যাচ্ছে।

ইথিওপিয়া পুলিশ এবং দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক জানিয়েছে, অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের একজন ফ্রিল্যান্স ভিডিও সাংবাদিক এবং অন্য দুই জন স্থানীয় সাংবাদিককে ইথিওপিয়ায় আটক করা হয়েছে।

সরকারি পুলিশ বুধবার এক বিবৃতিতে এই সাংবাদিকদের ওরোমো লিবারেশন আর্মির সদস্যদের সাক্ষাত্কার নিয়ে "সন্ত্রাসবাদ প্রচার" করার জন্য অভিযুক্ত করেছে। এই গোষ্ঠীকে সংসদ একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বলে চিহ্নিত করেছে।

এপি জানিয়েছে যে তাদের ফ্রিল্যান্সার, আমির আমান কিয়ারো, একটি রিপোর্টিং ট্রিপ থেকে দেশে ফেরার পর ২৮শে নভেম্বর দেশটির যুদ্ধ-সম্পর্কিত জরুরি অবস্থার অধীনে তাকে আটক করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাকে অভিযুক্ত করা হয়নি।

এপির নির্বাহী সম্পাদক জুলি পেস এক বিবৃতিতে বলেছেন, "এগুলো ভিত্তিহীন অভিযোগ। কিয়ারো একজন স্বাধীন সাংবাদিক যিনি ইথিওপিয়ায় সংঘাতের সব পক্ষের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেছেন। আমরা ইথিওপিয়ান সরকারকে অবিলম্বে কিয়ারোকে মুক্তি দেওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি"।

পুলিশের বিবৃতিতে আটককৃত অন্য সাংবাদিকদের মধ্যে একজনকে চিত্রগ্রাহক টমাস এনগিদা এবং রাষ্ট্র-অধিভুক্ত ফানা ব্রডকাস্টিং নেটওয়ার্কের আদ্দিসু মুলুনেহ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ফানার প্রধান নির্বাহী অ্যাডমাসু ডামটিউ মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বলেছেন, আদ্দিসুর গ্রেপ্তার "আমাদের সাথে সম্পর্কিত নয়।" তিনি আর বিস্তারিত কিছু বলেননি।

সরকারি পুলিশ ইন্সপেক্টর টেসফায়ে ওলানি রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমকে বলেছেন, ইথিওপিয়ার জরুরি অবস্থা এবং সন্ত্রাসবিরোধী আইন লংঘনের জন্য সাংবাদিকরা সাত থেকে পনেরো বছরের কারাদণ্ডের মুখোমুখি হতে পারে।

XS
SM
MD
LG