অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেন সম্পর্কিত রুশ অপপ্রচারের নিন্দা করেছে যুক্তরাষ্ট্র


প্ল্যানেট ল্যাবস পিবিসির এই স্যাটেলাইট চিত্রটিতে রাশিয়ার ভোরোনজ শহরের ঠিক দক্ষিণে পোগনোভো প্রশিক্ষণ এলাকায় অবস্থানরত যানবাহন এবং ট্যাঙ্কগুলি দেখা যাচ্ছে। ২৬ জানুয়ারী ২০২২।

রাশিয়ার ইউক্রেন অভিযানের প্রস্তুতিতে অতীতের প্রথা ভেঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা ক্রমবর্ধমান হারে গোয়েন্দা তথ্যাদি প্রকাশ করছে। তারা প্রয়াস চালাচ্ছে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পরিকল্পনাগুলোর মুখোশ উন্মোচন করে তার বিশ্ব জনমত গড়ার প্রয়াসকে বানচাল করার।

হোয়াইট হাউস সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে প্রচার করেছে, অভিযানের অজুহাত খুঁজতে রাশিয়া "ফলস ফ্ল্যাগ" বা মিথ্যা পতাকা অভিযান শুরু করেছে। ব্রিটেন রুশ গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে এমন বিশেষ কয়েকজন ইউক্রেনের জনগণের নাম প্রকাশ করেছে। তারা প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জিলেন্সকিকে অপসারণ করার ষড়যন্ত্রে নিয়োজিত রয়েছে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র রুশ সামরিক অবস্থানের মানচিত্র প্রকাশ এবং সবিস্তারে জানিয়েছে, কেন তারা বিশ্বাস করে যে, রাশিয়া ১ লাখ ৭৫ হাজার সেনা নিয়ে ইউক্রেনে হামলা চালাতে চায়।

তবে এসব তথ্যাদি প্রকাশ ঝুঁকি ব্যতিরেকে হয় না। গোয়েন্দা তথ্যের মূল্যায়ন সেনাদের গতিবিধির ছবির বাইরেও নানাধরনের নিশ্চয়তা বহন করে। যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা যৎসামান্যই অন্য প্রমাণাদি দেখাতে পেরেছে। ওয়াশিংটনের এসব দাবিকে মস্কো হিস্টিরিয়া বলে নাকচ করে দিয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের অতীতের গোয়েন্দা ব্যর্থতা, যেমন ইরাকের অস্ত্র কর্মসূচি সম্পর্কিত মিথ্যা তথ্য প্রকাশের কথা বলেছে।
সামগ্রিক সংঘাতের জন্য বিভ্রান্তি ও অসন্তোষ ছড়ানোর কৌশল হিসেবে মস্কোর অপপ্রচার চালানোর খ্যাতি রয়েছে। রাশিয়া যখন ইউক্রেনের ক্রিমিয়াতে ২০১৪ সালে অভিযান চালিয়েছিল, তখন জাতিগত রুশ বাসিন্দাদের প্রভাবিত করতে প্রচারণা চালায়। রাশিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রীয় মাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমগুলো তখন অভিযোগ আনে যে, পশ্চিমারা কিয়েভে প্রতিবাদ–বিক্ষোভে উসকানি দিয়েছে। ওই সব অভিযোগে ইউক্রেনের সেনাবাহিনী কর্তৃক সংঘটিত অপ্রমাণিত ভীতিপ্রদ বিভিন্ন অপরাধের বর্ণনাও দেওয়া হয়।
হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বর্ণনা করেছেন, “যখন আমরা এটি দেখতে পাই তখন বুঝতে পারি বিভ্রান্তির আহ্বান জানানোর সিদ্ধান্ত কৌশলগত”। রাশিয়া যদি হামলা চালায়, তার প্রেক্ষিতে হোয়াইট হাউস কঠোর নিষেধাজ্ঞার হুঁশিয়ারি দিয়েছে এবং হামলা চালানো হলে নেটোর পূর্বাঞ্চলীয় এলাকাজুড়ে সেনা পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমি মিত্ররা ইউক্রেনের কাছে অস্ত্রশস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র পাঠাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG