অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চুয়াডাঙ্গায় চুরির অভিযোগে খুঁটিতে বেঁধে যুবককে নির্যাতন


নির্যাতনের প্রতীকী ছবি। (ছবি- অ্যাডোবি স্টক)

চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা উপজেলায় চুরির অভিযোগে দোকানের খুঁটিতে বেঁধে প্রকাশ্যে এক যুবককে নির্যাতন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আলমডাঙ্গা পৌর এলাকার হাফিজ মোড়ে শেখ ট্রেডার্সে এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার সাদ্দাম হোসেন (২২) আলমডাঙ্গা পৌর এলাকার থানাপাড়ার আকমল হোসেনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, আলমডাঙ্গা পৌর এলাকার হাফিজ মোড়ে শেখ ট্রেডার্সের মালিক শেখ আমানুল্লাহ বিভিন্ন পন্যের ডিলার। মঙ্গলবার দুপুরে তার দোকানের জন্য একটি গাড়ি থেকে পণ্য নামানো হচ্ছিল। এ সময় সাদ্দাম হোসেন ওই গাড়ি থেকে নুডলস ও কিছু মালামাল নিয়ে পালিয়ে যান। পরে সাদ্দামকে আটক করে প্রকাশ্যে দোকানের সামনের খুঁটিঁতে তার দুই হাত বেঁধে একটি নির্যাতন করা হয়।

ব্যবসায়ী শেখ আমানুল্লাহ বলেন, “বিভিন্ন সময়ে আমার প্রতিষ্ঠানে চুরির ঘটনা ঘটত। আজ কিছু নারিকেল তেল ও নুডলসের প্যাকেট চুরির সময় স্থানীয়রা হাতেহাতে সাদ্দামকে ধরে। তবে তাকে দোকানের খুঁটিতে বেঁধে মারধর করা আমার অন্যায় হয়েছে।”

চুয়াডাঙ্গা মানবতা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট মানি খন্দকার বলেন, “দোকানের খুঁটিতে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা যদি সত্যি হয় তাহলে এটা বড় অপরাধের মধ্যে পড়ে। কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নিতে পারেন না।”

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, “পুলিশ খবর পেয়ে সাদ্দামকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। নির্যাতনের বিষয়টি পুলিশের জানা ছিল না। পরে সংবাদকর্মীদের মাধ্যেমে নির্যাতনের ভিডিও দেখেছি। এভাবে কেউ আইন নিজ হাতে তুলে নিতে পারেন না। চুরির ঘটনায় এখনো কেউ থানায় অভিযোগ দেয়নি। নির্যাতনের ঘটনায় সাদ্দাম বা তার পরিবার অভিযোগ করলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।”

তিনি আরও বলেন, “সাদ্দামকে নির্যাতনের অভিযোগে রাতেই শেখ আমানুল্লাহকে জিজ্ঞাসাদের জন্য আটক করে থানায় আনা হয়েছে।”

XS
SM
MD
LG