অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভ্যাক্সিনবিরোধী প্রতিবাদ কানাডায় ক্ষোভের উদ্রেক করছে


ভ্যাক্সিন ও কোভিড-১৯ এর বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে কানাডার পার্লামেন্ট হিলের সামনে বিক্ষোভ। (ছবি- রয়টার্স)

বিনয় ও নিয়মানুবর্তিতার জন্য কানাডিয়ানদের সুনাম রয়েছে। ব্যতিক্রম দেখা গেল ভ্যাক্সিনবিরোধী সমাবেশে। ভ্যাক্সিন ও কোভিড-১৯ এর বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী সপ্তাহের শেষে রাজধানীর রাস্তায় নেমে পড়ে এবং পার্লামেন্ট হিলের চারপাশে যানচলাচল বন্ধ করে দেয়।

এখন পর্যন্ত কানাডার সবচেয়ে বড় মহামারী সংক্রান্ত বিক্ষোভের পর, বিক্ষোভকারীরা তেমন সহানুভূতি পায়নি। বরং তাদের কিছু অশোভন আচরণে অনেকেই ক্ষুব্ধ। কানাডায় শতকরা ৮০ ভাগেরও বেশি মানুষের টীকাদান সম্পন্ন হয়েছে।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো অটোয়ার বিক্ষোভকারীদের “প্রান্তিক সংখ্যালঘু” বলে অভিহিত করেছেন।

ভ্যাক্সিন বিধির বিরুদ্ধে ক্রস কান্ট্রি “ফ্রিডম ট্রাক কনভয়’-এর পক্ষে একজন শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদ সমর্থনকারীসহ আয়োজকরা লক্ষ লক্ষ ডলার সংগ্রহ করেছে। তারা যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এবং টেসলা বিলিওনিয়ার ইলন মাস্কের সমর্থনও আদায় করেছে। অনেক বিক্ষোভকারীই হোটেল,মল,মুদি দোকানে মাস্ক পরতে অস্বীকৃতি জানান।

অটোয়া পুলিশ প্রধান পিটার স্লোলাই বলেন , বেশ কয়েকটি তদন্ত চলছে এবং বিক্ষোভের সাথে সম্পর্কিত হেট ক্রাইম, হুমকি এবং হামলা মোকাবেলায় একটি টিপ লাইন চালু করা হয়েছে।

অত্যন্ত সংক্রামক ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের একটি ঢেউ কানাডার সবচেয়ে জনবহুল প্রদেশ অন্টারিও ও কুইবেককে লকডাউনের দিকে ধাবিত করছে। প্রাদেশিক সরকার আরোপিত ভ্যাক্সিনের বাধ্যবাধকতা বহাল রয়েছে।

কিন্তু রেস্তোরাঁগুলো তাদের আসন ক্ষমতার অর্ধেক লোকসমাগমের শর্তে সোমবার চালু হয়েছে। কুইবেকের প্রধান ফ্রাংকোস লেগল্ট মঙ্গলবার ঘোষণা করেন যে, টিকাবিহীনদের বাড়তি ট্যাক্স দেয়ার প্রস্তাব তিনি পরিত্যাগ করেছেন। কারণ এটি কুইবেকবাসীদের বিভক্ত করছে।

XS
SM
MD
LG