অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়া ইউক্রেন সম্পর্কে অপতথ্য ছড়াচ্ছে; অভিযোগ পশ্চিমা কর্মকর্তাদের


রাশিয়ার মস্কোতে ডজড (রেইন) টিভি চ্যানেলের স্টুডিওতে কাজ করছেন একজন সাংবাদিক। ২০ আগস্ট, ২০২১।

পশ্চিমা কর্মকর্তা এবং যুদ্ধ বিষয়ক তথ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ক্রেমলিন ইউক্রেন এবং পশ্চিমা শক্তিকে হতাশাগ্রস্ত করার লক্ষ্যে, বিভ্রান্তিকর আক্রমণ চালাচ্ছে। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সম্প্রচার মাধ্যম এবং সামাজিক মাধ্যমে পশ্চিমকে আগ্রাসী এবং কিয়েভ সরকারকে নেটোর পুতুল হিসাবে চিত্রিত করে টোপ ফেলার চেষ্টা করছে।

সাম্প্রতিক দিনগুলিতে ভীতিকর কিছু বানোয়াট খবরে বলা হয়েছে , ইউক্রেনীয় কমান্ডোরা পূর্ব ইউক্রেনের ডনবাস অঞ্চলে তথাকথিত "মিথ্যা পতাকা" অর্থাত্ প্রতারণামুলক আক্রমণ চালানোর পরিকল্পনা করছে, যাতে নেটোর সামরিক পদক্ষেপের ন্যায্যতা প্রমাণ করা যায়। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র এই সপ্তাহের চীনে শীতকালীন অলিম্পিকের সময় রাশিয়াকে আক্রমণ করার পরিকল্পনা করছে বলেও ওইসব কাহিনীতে বলা হচ্ছে।

তাদের ভাষ্য মতে, মূল বার্তাটি হ'ল নেটো এবং কিয়েভ রাশিয়ার জন্য একটা বড় হুমকি।

মস্কো ২০১৪ সাল থেকে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে একটি অত্যাধুনিক এবং বহুমুখী তথ্য যুদ্ধ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। বিশেষত ইউক্রেনে একটি জনপ্রিয় অভ্যুত্থানের মাধ্যমে রাশিয়ান নেতা ভ্লাদিমির পুতিনের সহযোগী, ইউক্রেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ইয়ানুকোভিচ সরকারের পতন ঘটার পর থেকেই এই তথ্য যুদ্ধের শুরু। রঙিন বিপ্লবে ইয়ানুকোভিচের ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার জন্য মস্কো পশ্চিমের উপর দোষারোপ করে আর কিছুদিন পর, রাশিয়া ইউক্রেনের ক্রাইমিয়া উপদ্বীপকে দখল করে এবং প্রথম দিকে সশস্ত্র প্রক্সি ব্যবহার করে ডনবাসের অংশ বিশেষ দখল করে নেয়।

পশ্চিমা নেতারা আশঙ্কা করছেন, পুতিন ইউক্রেন আক্রমণ করতে প্রস্তুত, যদি তিনি যুক্তরাষ্ট্র এবং নেটোর কাছ থেকে যে ছাড় চান, তা নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হন, যা বাস্তবে রাশিয়ার জন্য পূর্ব ইউরোপ জুড়ে সোভিয়েত যুগের মতো প্রভাবের একটা ক্ষেত্র প্রস্তুত করবে। পুতিনের মূল দাবিগুলির মধ্যে একটি হল এই নিশ্চয়তা যে, নেটো কখনই পূর্ব দিকে আর প্রসারিত হবে না। ইউক্রেনের সীমান্তে নজিরবিহীন ব্যাপক সামরিক অবস্থান সত্ত্বেও, রাশিয়ার কর্মকর্তারা তাদের প্রতিবেশীকে আক্রমণ করার কথা অস্বীকার করে আসছেন। বরং তারা পশ্চিমা শক্তিগুলোকে আতংক সৃষ্টির জন্য অভিযুক্ত করে।

পশ্চিমা মিডিয়া গুলো সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে অভিযোগ করছে, রাশিয়ার রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত মিডিয়া তাদের প্রতিবেদন এবং ফুটেজের অপব্যবহার করে সেগুলোর ভয়েস পরিবর্তিত ধারা ভাষ্য দিয়ে ডাবিং করে তৈরি করা হচ্ছে, যাতে বোঝানো হয় পশ্চিমারা যুদ্ধক্ষেত্রে রয়েছে এবং আক্রমণ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এটি ভিন্ন ধরণের বিষয় যাকে অপতথ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা 'তথ্য লন্ডারিং' বলে অভিহিত করেন । প্রায়শই মস্কোর সাথে সংযুক্ত কিন্তু অস্পষ্ট পটভূমি রয়েছে এমন "বিশেষজ্ঞদের" সাক্ষাত্কারের মাধ্যমে পশ্চিমা যুক্তিগুলিকে খাটো করার জন্য পশ্চিমা উত্সগুলি তারা ব্যবহার করে।

ইউক্রেনের বেসরকারি সংস্থা ক্রাইসিস মিডিয়া সেন্টার, যেটি অন্যান্যদের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে তহবিল গ্রহণ করে, তারা সতর্ক করেছে যে, ক্রেমলিন ক্রমাগত অভিযোগ করে উত্তেজনা বাড়াতে চাইছে যে, ইউক্রেন “উস্কানির প্রস্তুতি নিচ্ছে”।

XS
SM
MD
LG