অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে মিয়ানমারের রাজবন্দীদের অনশন কর্মসূচি


ফাইল - মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে ইনসেইন কারাগারের প্রবেশ পথে কারা কর্মকর্তা এবং পুলিশ পাহারা দিচ্ছে। ১৮ অক্টোবর ২০২১।

মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে অবস্থিত কুখ্যাত ইনসেইন কারাগারের কয়েক ডজন রাজবন্দী, সামরিক জান্তার শাসনের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে, বিগত চার দিন ধরে একটি অনশন কর্মসূচি পালন করছেন বলে শুক্রবার কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে। এক বছরের কিছু আগে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখলের পর থেকে এটি এমন তৃতীয় ঘটনা।

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে একজন আইনজীবি আরএফএ’র মিয়ানমার বিভাগকে জানান যে, প্রতিবাদের অংশ হিসেবে ইয়াঙ্গুনের এই কারাগারের ১৪৯ জন রাজবন্দী সেখানকার কর্মচারীদের কাছ থেকে খাদ্য গ্রহণ বন্ধ করে দিয়েছেন। ২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারিতে সংঘটিত সামরিক অভ্যুত্থানের প্রথম বর্ষপূর্তি থেকে অনশনটি শুরু হয়।

তিনি বলেন, “তারা কারাগার থেকে দেওয়া খাবার আর খাচ্ছেন না – তারা শুধুমাত্র তাদের বাসা থেকে পাঠানো খাবার খাচ্ছেন।” তিনি আরও বলেন, “আমি জানিনা যে আরও কতদিন এই অনশন চলবে।”

ঐ আইনজীবির তথ্যমতে, ইনসেইন-এর থাব্ইয়ে হলের ২ নম্বর ইউনিটের রাজবন্দীরা অনশনটি শুরু করেন। তিনি আরও বলেন, কারাবন্দীরা কোন দাবি পেশ করেননি এবং কর্তৃপক্ষ অনশনকারীদের থামাতে তাদের সাথে কোন সমঝোতা করছেন না।

কারাগার ও রাজবন্দীদের পরিবারের ঘনিষ্ঠ সেখানকার আরও কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে যে, সামরিক অভ্যুত্থানের পর কারাগারে এটি এমন ‍তৃতীয় ধর্মঘট। এর আগে জুলাই ও ডিসেম্বরেও ধর্মঘট হয়েছিল। এর আগের ধর্মঘটগুলোতে কর্তৃপক্ষ বন্দীদের মারধর করে, চিকিৎসা সেবা না দিয়ে ও তাদেরকে একাকী কারাবাস দিয়ে তা দমনের চেষ্টা করেছিল।

শুক্রবার আরএফএ যোগাযোগ করলে, কারাবিভাগের মুখপাত্র খিন শোয়ে কারাগারে চলমান কোন ধর্মঘটের কথা অস্বীকার করেন।

XS
SM
MD
LG