অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতের সন্ত্রাস বিরোধী আইনে গ্রেফতার হলেন কাশ্মীরের এক সাংবাদিক 


কাশ্মীরওয়ালার প্রধান সম্পাদক ফাহাদ শাহ শ্রীনগরে তার সহকর্মীদের সঙ্গে কাজ করছেন, ২১ শে জানুয়ারি, ২০২২, ছবি/ দার ইয়াসিন/এপি

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলিশ জানায় বিতর্কিত এই অঞ্চলে সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে দমননীতির অংশ হিসাবে তারা প্রখ্যাত এক সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে। তার বিরুদ্ধে দেশ বিরোধী প্রতিবেদন ছাপানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম, কাশ্মীর ওয়ালা'র সম্পাদক, ফাহাদ শাহকে শুক্রবার দক্ষিণাঞ্চলীয় পুলওয়ামা শহরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা এবং পরবর্তীতে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায় তাকে ফেইসবুক ব্যবহারকারী হিসাবে শনাক্ত করা হয়েছে এবং পোর্টাল ব্যবহার করে তিনি দেশ বিরোধী প্রতিবেদন ছাপিয়েছেন, তবে কি ছাপানো হয়েছে তা উল্লেখ করা হয় নি। পুলিশ জানায় "অপরাধী মনোবৃত্তি নিয়ে ভীতি সঞ্চারের লক্ষ্যে এই প্রতিবেদন পোস্ট করা হয়েছে, যা আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করতে জনগণকে উস্কানি দিতে পারে। পুলিশ জানায়, “এটি সন্ত্রাসী তৎপরতা মহান ভাবে তুলে ধরার সমতুল্য"।

৩৪ বছর বয়সী শাহকে ভারতের কঠোর সন্ত্রাস বিরোধী এবং রাষ্ট্রদ্রোহ আইনের আওতায় গ্রেফতার করা হয়। তার ৭ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে।

শাহ এবং কাশ্মীরওয়ালা'র সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরো কয়েকজন সাংবাদিককে গত কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন প্রতিবেদন ছাপানোর জন্য একাধিকবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

শনিবার টুইটার মারফত পুলিশ জানায়, “সন্ত্রাসবাদকে মহিমান্বিত করা, অসত্য খবর ছড়ানো এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিষয় জনমনে উস্কানি জোগানোর অভিযোগে” তিনটি মামলায় শাহকে খোঁজা হচ্ছে। পুরস্কার বিজয়ী এই সাংবাদিক বহু বিদেশী পত্র-পত্রিকার জন্যও তার প্রতিবেদন ছাপিয়েছেন।

কাশ্মীর, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে বিভাজিত একটি অঞ্চল এবং দুটি দেশই সম্পূর্ণভাবে সম্পূর্ণ কাশ্মীর দাবি করে থাকে। পাকিস্তানী শাসনের অধীনে অথবা দুটি দেশ থেকেই স্বাধীন হবার জন্য ১৯৮৯ সাল থেকে সংযুক্ত কাশ্মীরের দাবিতে ভারত-নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে পূর্ণাঙ্গ সশস্ত্র বিদ্রোহ শুরু হয়।

নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে বিনা শর্তে এবং অবিলম্বে শাহকে মুক্তি দিতে, তার কাজের বিষয়ে সব তদন্ত তুলে নিতে এবং পত্রিকার অন্যান্য সদস্যদের আটক করা বন্ধ করতে দাবি জানিয়েছে।

XS
SM
MD
LG