অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিরিয়ায় বন্দী শিবিরে আইএস নারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ–এক শিশু নিহত


ফাইল - মহিলারা সিরিয়ার হাসাকা গভর্নরেটের আল-হল বাস্তুচ্যুতি শিবিরের ভেতরে হাঁটছেন৷১ এপ্রিল ২০১৯।

উত্তর–পূর্ব সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেটের পরিবারদের এক বন্দী শিবিরের নারীরা সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) তাদের কুর্দি রক্ষীদের অপহরণের চেষ্টা করেন বলে জানিয়েছে একটি বিরোধী যুদ্ধ পর্যবেক্ষক দল। এ সময় গোলাগুলির ঘটনায় এক শিশু নিহত হয়। আহত হন আরও কয়েকজন।

একজন কুর্দি কর্মকর্তা নারী নিরাপত্তারক্ষীদের অপহরণের চেষ্টার কথা স্বীকার করলেও তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের কোনো তথ্য প্রকাশ করেননি। বিস্তৃত এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে গড়ে ওঠা এই আল-হল বন্দী শিবিরে হাজার হাজার নারী ও শিশু বন্দী রয়েছে। বন্দীদের সবাই আইএস সদস্যদের স্ত্রী, বিধবা এবং সন্তান।

উত্তর–পশ্চিম সিরিয়ায় পলাতক অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের অভিযানে আইএসের এক শীর্ষ নেতা আবু ইব্রাহীম আল হাশেমি আল কুরেশি নিহত হওয়ার কয়েক দিন পরেই এই হামলার ঘটনা ঘটল। বিগত কয়েক বছর ধরে এই বন্দী শিবিরে একাধিক অপরাধ সংঘটিত হয়েছে।

সোমবারের এই ঘটনার দুই সপ্তাহ আগে সিরিয়ার উত্তর–পূর্বে অবস্থিত হাসাকেহ শহরে এক কারাগারে আইএস যোদ্ধারা হামলা চালায়। হাসাকেহ শহরের ওই কারাগারে প্রায় ৩ হাজার জঙ্গি এবং কিশোর বন্দী রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, আল কুরেশি সিরিয়ার কারাগারে এই হামলার জন্য দায়ী।

কারাগারে হামলার ফলে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের সঙ্গে আইএসের ১০ দিনব্যাপী সংঘর্ষে প্রায় ৫০০ জন নিহত হয়। পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত কুর্দি বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

ব্রিটেন-ভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে যে, আল-হল বন্দী শিবিরের নারী বন্দীরা রক্ষীদের অপহরণ করার চেষ্টা করছিল। যার ফলে গুলি চালানো হয়। গুলিতে একটি ১০ বছরের শিশু নিহত হয় এবং ছয় নারী বন্দী ও শিশু আহত হয়।

পর্যবেক্ষক প্রতিষ্ঠানটি আরও জানায়, গোলাগুলিতে আগুন লেগে যাওয়ার কারণে বন্দীরা রক্ষীদের অপহরণ করতে সক্ষম হয়নি।

শরণার্থী ও বাস্তুচ্যুতদের জন্য কুর্দি-নেতৃত্বাধীন প্রশাসনের বিভাগের প্রধান শিক্সমুস এহমেদ অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ক্যাম্পে কাজ করা আরেক কুর্দি কর্মকর্তা বলেছেন যে, তিনি অপহরণের চেষ্টা সম্পর্কে অবগত নন, তবে বন্দী শিবিরের এক অংশে দাঙ্গা হয়েছিল, যেখানে বেশির ভাগ বন্দী বিদেশি নারী এবং শিশু। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি বলেন, সোমবারের দাঙ্গায় সাতজন নারী ও শিশু আহত হয়েছে।

চারদিকে বেড়া দিয়ে ঘেরা এই বন্দী শিবিরে একাধিক পরিবার তাঁবুর মধ্যে গাদাগাদি করে থাকেন, তাদের চিকিৎসা সুবিধা ন্যূনতম এবং শিবিরে পরিষ্কার পানি ও পয়নিস্কাশনের ব্যবস্থাও সীমিত।

বর্তমানে প্রায় ৫০ হাজার সিরিয়ান ও ইরাকি আল-হলে অবস্থান করছে। তাদের মধ্যে প্রায় ২০ হাজার শিশু।

সোমবারের ঘটনাটি অ্যানেক্স নামে পরিচিত শিবিরের পৃথক, ভারী সুরক্ষিত একটি অংশে ঘটেছে। এই অংশে ৫৭টি দেশের প্রায় ২ হাজার নারী এবং ৮ হাজার শিশুকে বন্দী অবস্থায় রাখা হয়েছে। অ্যানেক্সে থাকা নারীরা সবচেয়ে কঠোর আইএস সমর্থক বলে পরিচিত।

পর্যবেক্ষক প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ২০২১ সালে ক্যাম্পের অভ্যন্তরে ৮৪টি অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। এসব ঘটনায় অন্তত ৮৯ জন নিহত হয়েছেন, যার মধ্যে দুজন কুর্দি পুলিশ, ৬৭ জন ইরাকি এবং ২০ জন সিরিয়ান।

XS
SM
MD
LG