অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বসন্ত ও ভালোবাসা দিবসে যশোরে ফুলের গ্রামে ১৫ কোটি টাকার ফুল বিক্রি


যশোরের গদখালী বাজারে ফুল বিক্রির দৃশ্য। (ছবি- বাংলাদেশ প্রতিদিন)

বাংলাদেশের যশোরের গদখালীর ফুল চাষিদের জন্য করোনাকালটা ভালো ছিলো না। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নানা সময় বন্ধ ছিলো বিয়েসহ সকল সামাজিক অনুষ্ঠান। কিন্তু এবার পরিস্থিতির বদল হয়েছে। ভালোবাসা ও বসন্ত দিবস ঘিরে বদলে গেছে ফুলের পাইকারি বাজার। কাল বাংলাদেশে উদযাপিত হবে পহেলা ফাল্গুন। এর সঙ্গে যোগ হযেছে ভালোবাসা দিবস। দই বছর পর এবার দুই দিবসকে ঘিরে ফুল ব্যবসায়ীদের দিন ফিরেছে। ১৫ কোটি টাকার ফুল বিক্রি করেছেন চাষীরা। স্থানীয় চাষীরা জানান, এ বছর ফুলের ফলন যেমন ভাল হয়েছে। তেমনি দুই বছর পর বাংলাদেশ ফিরেছে উৎসবের মেজাজে। তাই বিক্রি হয়েছে ভালো।

করোনার আঘাতে ফুল চাষ থমকে গিয়েছিলো। যশোরের ফুলের মাঠে আবাদ থাকলেও বিক্রি ছিলো না। এই কারণে আর্থিক ক্ষতি হচ্ছিল ফুল চাষিদের। এই পরিস্থিতি বদলে গদখালীর চাষিরা সরকারের কাছ থেকে প্রণোদনা নেন। ব্যাপকভাবে ফুল চাষ শুরু করেন। করোনা ও লকডাউন আতঙ্ক ছিল। শেষ পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতি মোটামুটি স্বাভাবিক হওয়ায় সারা দেশে ফুলের চাহিদা বেড়ে যায়। দামও বাড়ে দুই গুণ। আগের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার সুযোগ আসে। চাষিরা বলছেন, এবার যে পরিমাণ ফুল উৎপাদন ও বিক্রি হয়েছে, তাতে বিগত বছরের ক্ষতি অনেকটাই পুষিয়ে নিতে পারবেন। ভালোবাসা ও বসন্ত দিবসে গদখালী বাজারে তৈরি হয়েছে উৎসবের আমেজ। সারাদেশের ফুল ব্যবসায়ীরা গত এক সপ্তাহ ভীড় জমান গদখালীতে।

ফুল ব্যবসায়ী সোসাইটির সভাপতি আব্দুর রহিম জানান, ৮-১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত গদখালী বাজারে ১০ কোটি টাকার ফুল বিক্রি হয়েছে। ১৩ ও ১৪ ফেব্রুয়ারিও বড় অংকের ফুল বিক্রি হয়। এ দুই দিনে আরও অন্তত ৫ কোটি টাকার ফুল বিক্রির আশা রয়েছে। যশোর থেকে আনা ফুল এখন ঢাকার বিভিন্ন দোকানে শোভা পাচ্ছে। ঢাকার গুলশান এলাকার ফুল ব্যবসায়ী আরিফুর রহমান জানান, "বিক্রি বেড়েছে। কাল রেকর্ড পরিমাণ ফুল বিক্রি হবে ঢাকাতে।"

XS
SM
MD
LG