অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পুলিশের অভিযান—অস্ত্রসহ তিনজন আরসা সদস্য গ্রেপ্তার


কক্সবাজারের টেকনাফের উনচিপ্রাং ক্যাম্প থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী।

বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার উনচিপ্রাং ক্যাম্পে শুক্রবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র ও গুলিসহ তিনজন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। গ্রেপ্তারকৃতরা মিয়ানমারের সশস্ত্র গোষ্ঠী “আরাকান স্যালভেশন আর্মি”র (আরসা) সদস্য বলে জানা গেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন—টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং (ক্যাম্প-২২) ক্যাম্পের সি-৪ ব্লকের রোহিঙ্গা মৃত দিল মোহাম্মদের ছেলে মোহাম্মদ শফিক ওরফে হাফেজ শফিক (২৬), একই ক্যাম্পের ডি-৪ ব্লকের বাসিন্দা মোহাম্মদ কালা মিয়ার ছেলে আমান উল্লাহ (২৬) ও একই ক্যাম্পের বি-১ ব্লকের বাসিন্দা মৃত সৈয়দুল ইসলামের ছেলে জামাল আহাম্মদ (৫১)।

এপিবিএন রাতে আটক তিনজনকে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, “অস্ত্র ও গুলিসহ প্রেপ্তার তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে কক্সবাজার বিচারিক হাকিম আদালতে পাঠানো হবে। সেখান থেকে জামিন অযোগ্য অস্ত্র ও ডাকাতির প্রস্তুতি পৃথক দুই মামলায় এই তিন রোহিঙ্গাকে কারাগারে পাঠানো হবে।”

রোহিঙ্গা শিবিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম তারিক ভয়েস অফ আমেরিকাকে বলেন, “শুক্রবার বিকেলে উনচিপ্রাং ক্যাম্পের সি ব্লক থেকে একটি নাইন এমএম বিদেশি পিস্তল, একটি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র (এলজি), একটি ম্যাগাজিন ও ৬১ রাউন্ড তাজা গুলিসহ তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়।’

এপিবিএন পুলিশের দাবি, গ্রেপ্তার রোহিঙ্গারা আরসা সদস্য পরিচয় দিয়ে ক্যাম্প এলাকায় মাদক ব্যবসা, মুক্তিপণের জন্য লোকজনকে অপহরণ ও চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে।

XS
SM
MD
LG