অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পূর্ব ইউক্রেনের বিচ্ছিন্নতাবাদী অঞ্চলগুলির 'স্বাধীনতার' স্বীকৃতি দেবেন পুতিন : ক্রেমলিন


পূর্ব ইউক্রেনের দুটি রুশ-সমর্থিত বিচ্ছিন্ন অঞ্চলকে স্বাধীন সত্তা হিসাবে পুতিনের স্বীকৃতি দেওয়ার পর, রাশিয়ানপন্থীরা রাস্তায় উল্লাস করে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পূর্ব ইউক্রেনের দোনেৎস্ক এবং লুহানস্ক-এর মতো রুশ-ভাষী অঞ্চলগুলিকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আর এই ঘোষণা পশ্চিমাদের আশঙ্কাকে আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে যে, পুতিন দ্রুতই ইউক্রেন আক্রমণ করতে চলেছেন৷

ক্রেমলিন জানিয়েছে, পুতিন সোমবার ফ্রান্স ও জার্মানির নেতাদের তার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

২০১৪ সালে রাশিয়া ইউক্রেনের ক্রাইমিয়ান উপদ্বীপ দখল করার পর থেকে মস্কোপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং কিয়েভের বাহিনীর মধ্যে লড়াইয়ে এ পর্যন্ত প্রায় ১৪,০০০ মানুষ নিহত হয়েছে।

বিচ্ছিন্নতাবাদীরা চায় রাশিয়া মৈত্রী চুক্তিতে স্বাক্ষর করুক এবং তাদের সামরিক সহায়তা প্রদান করুক, যাতে তারা, তাদের মতে ইউক্রেনের চলমান সামরিক আক্রমণ থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারে।

রাশিয়ান পার্লামেন্ট গত সপ্তাহে পুতিনকে আনুষ্ঠানিকভাবে ডনেটস্ক এবং লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিককে স্বীকৃতি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। উভয়ই ২০১৪ সালে ইউক্রেন থেকে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিল, যদিও অন্য কোন দেশ বর্তমানে ওই প্রজাতন্ত্রগুলোকে সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসাবে স্বীকৃতি দেয় না।

পুতিন বরাবর বলে আসছেন, পূর্ব ইউক্রেনে যুদ্ধ শেষ করার জন্য শান্তির "কোনই সম্ভাবনা" নেই। তবে প্রায় দেড় লাখ রাশিয়ান সৈন্য ইউক্রেনের সীমান্তে মোতায়েনের পরও মস্কো দাবি করছে, ইউক্রেনে আক্রমণ করার কোনও পরিকল্পনা তাদের নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রবিবার বেলা শেষে ইউক্রেন সংকট নিয়ে পুতিনের সাথে সরাসরি আলোচনায় বসতে "নীতিগতভাবে" সম্মত হয়েছেন, তবে শর্ত হল রাশিয়া যেন প্রথমে ইউক্রেন আক্রমণ না করে।

তবে বাইডেন-পুতিন শীর্ষ সম্মেলন শেষ পর্যন্ত হবে কিনা, তা এখনো অনিশ্চিত। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন এবং রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এই সপ্তাহে ইউরোপে প্রথমে আলোচনা করবেন।

সাকি বলেন, আমরা কূটনৈতিক সমাধানের জন্য সবসময়ই রাজি আছি। তবে “রাশিয়া যুদ্ধকে বেছে নিলে, দ্রুত এবং গুরুতর পরিণতি আরোপ করতেও আমরা প্রস্তুত। বর্তমানে, রাশিয়ার ভাবগতি দেখে মনে হচ্ছে, খুব শীঘ্রই তারা ইউক্রেনের উপর পূর্ণ মাত্রার আক্রমণের প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে”।

যুক্তরাষ্ট্র এবং তার পশ্চিমা মিত্ররা বলেছে, রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করলে, দেশটির বিরুদ্ধে তাঁরা দ্রুত এবং শাস্তিমূলক অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে।

অন্যদিকে, ক্রেমলিনের মুখপাত্র দ্যমিত্রি পেসকভ সোমবার সাংবাদিকদের বলেছেন, বাইডেন-পুতিন বৈঠকের জন্য এখনও কোনো সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা নেই, তবে এই ধরনের বৈঠককে "যদি নেতারা সম্ভব মনে করেন, কেবল তবেই সম্ভব।"

[এই প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি, এএফপি এবং রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে। ]

XS
SM
MD
LG