অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জাতিসংঘের অধিকার বিষয়ক কর্মকর্তারা উত্তর কোরিয়ার জন্য ৬ কোটি টিকা চেয়েছেন


উত্তর কোরিয়ার পিয়ংইয়ং স্টেশনের সামনে মাস্ক পরে চলাচল করছে লোকজন। ২৭ এপ্রিল, ২০২০। (ফাইল)
উত্তর কোরিয়ার পিয়ংইয়ং স্টেশনের সামনে মাস্ক পরে চলাচল করছে লোকজন। ২৭ এপ্রিল, ২০২০। (ফাইল)

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে জাতিসংঘের উত্তর কোরিয়া মানবাধিকার বিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ উত্তর কোরিয়ায় করোনভাইরাস টিকার ৬ কোটি ডোজ পাঠানোর জন্য অনুরোধ করেছেন। এখনও ব্যাপকভাবে কোভিড-১৯ ‘এর টিকা প্রদান ব্যাপক ভাবে যে দু’টি দেশে শুরু হয়নি তার একটি হলো উত্তর কোরিয়া।।

বিশ্বব্যাপী টিকা বিতরণ কর্মসূচি কোভ্যাক্সসহ কোভিড-১৯ টিকার একাধিক আন্তর্জাতিক প্রস্তাব উত্তর কোরিয়া প্রত্যাখ্যান করেছে বা তা নিয়ে এগিয়ে যেতে ব্যর্থ হয়েছে।

জাতিসংঘের উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার সংক্রান্ত বিশেষ প্রতিবেদক টমাস ওজেয়া কুইন্টানা বলেন, "আমাদের কাছে যে তথ্য রয়েছে তা থেকে বলা যায়, আংশিক সংখ্যক টিকা গ্রহণ করে এরপর বাকি ডোজগুলো নেয়ার সময় এক ধরণের চাপের শিকার হবে বলে উত্তর কোরিয়া কর্তৃপক্ষ সন্দেহ করছে ।" বুধবার সোওলে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান।

৬ কোটি ডোজ উত্তর কোরিয়ার সমগ্র জনসংখ্যাকে দু ডোজ করে টিকা প্রদানের জন্য যথেষ্ট হবে বলে ওজেয়া কুইন্টানা উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, "আমি জানি এটি উত্তর কোরিয়ার কাছে প্রস্তাব করা হয়নি"।সোওলে চলমান সফরের সময় ইউরোপীয় ইউনিয়নের কূটনীতিকদের কাছে তিনি বিষয়টি উত্থাপন করেছিলেন বলেও জানান কুইন্টানা।

জাতিসংঘের শিশু তহবিল ভ্যাকসিন মার্কেট ড্যাশবোর্ড অনুসারে, বর্তমানে উত্তর কোরিয়ার জন্য বরাদ্দ কোভ্যাক্স-এর মাত্র ১ কোটি ২৯ লাখ ডোজ টিকা রয়েছে। এর আগে, কোভ্যাক্স দেশটিতে ৮কোটি ১১ লাখ টিকা বরাদ্দ করেছিল। সম্ভবত পিয়ংইয়ং কোনো প্রতিক্রিয়া না দেখানোয় বরাদ্দের সংখ্যা কমানো হয়েছিল।

ভয়েস অফ আমেরিকা জুলাই মাসে রিপোর্ট করেছে যে, উত্তর কোরিয়া অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার নিরাপত্তা এবং কার্যকারিতা নিয়ে চিন্তিত। কোভ্যাক্স প্রাথমিকভাবে উত্তর কোরিয়ার জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা বরাদ্দ করেছিল। টিকার চালানে সহায়তাকারী আন্তর্জাতিক কর্মীদের দেশে প্রবেশে অনুমতি দিতেও উত্তর কোরিয়া অনিচ্ছুক বলে মনে হচ্ছিল।

XS
SM
MD
LG