অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পুতিন বিরোধী কারাবন্দী নেতা নাভালনি “যুদ্ধের বিপক্ষে”


ইউক্রেনের সৈন্যরা ইউক্রেনের মারিউপোলের বাইরে একটি ধ্বংস হওয়া ইউক্রেনীয় সামরিক স্থাপনায় বেঁচে যাজাও সরঞ্জামগুলি ট্রাকে তুলছে। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২।

রাশিয়ার কারাবন্দী বিরোধী নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনি বৃহস্পতিবার বলেন যে, তিনি মস্কোর ইউক্রেন আক্রমণের বিপক্ষে ছিলেন। প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেন আক্রমণ শুরু করার পর, কারাগার থেকেই বিচারের কাঠগড়ায় দাড়ান নাভালনি।

স্বাধীন সংবাদমাধ্যম দোজদ এর প্রকাশিত, কারাগারের অভ্যন্তরে হওয়া এই বিচারের একটি ভিডিওতে নাভালনিকে বলতে শোনা যায়, “আমি এই যুদ্ধের বিপক্ষে।”

তিনি বলেন, “রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে এই যুদ্ধটি আরম্ভ করা হয়েছে যাতে রাশিয়ার নাগরিকদের থেকে করা চুরিগুলো ধামাচাপা দেওয়া যায় এবং দেশটির সমস্যাগুলো থেকে তাদের মনোযোগ সরানো যায়।”

কারাগারের পোশাক পরিহিত নাভালনি বলেন যে, যুদ্ধটি “বিপুল সংখ্যক মানুষের ভোগান্তির, ভবিষ্যৎ ধ্বংসের এবং রাশিয়ার নাগরিকদের দারিদ্রের ধারা বজায় রাখার কারণ হবে।”

মস্কোর বাইরের একটি সর্বোচ্চ নিরাপত্তা সম্বলিত কারাগারে, নতুন অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিচার পরিচালনা করা হচ্ছে। বিচারে দোষী সাব্যস্ত হলে তার কারাবাস এক দশক পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে।

তার মিত্ররা বলেছেন যে, গত সপ্তাহে আরম্ভ হওয়া তার এই বিচার প্রক্রিয়াটি ইচ্ছাকৃতভাবে ইউক্রেন সঙ্কটের সময়ে করা হয়েছে।

নাভালনি পূর্বের জালিয়াতির অভিযোগগুলোতে এক বছর ধরে কারাগারে রয়েছেন। এর আগে তাকে বিষপ্রয়োগের একটি ঘটনায় তিনি বেঁচে গিয়েছিলেন। ঘটনাটির জন্য জন্য পশ্চিমারা ক্রেমলিনকে দায়ী করে।

স্থানীয় সময় ভোর ৫:৪০ মিনিটে (০২৪০ জিএমটি) জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষণের পর, বৃহস্পতিবার দিনের শুরুর দিকে পুতিন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে আক্রমণ আরম্ভ করেন।

XS
SM
MD
LG