অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রে আফগানিস্তান মিশন বন্ধ হচ্ছে ; অন্যত্র খোলা থাকবে


ওয়াশিংটনে আফগান দূতাবাস। (ফাইল ফটো- রয়টার্স)
ওয়াশিংটনে আফগান দূতাবাস। (ফাইল ফটো- রয়টার্স)

আফগান কূটনীতিকরা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ২৩ মার্চ দুপুরে আফগান দূতাবাস এবং দুটি কনস্যুলেটের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাবে।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের কর্মকর্তারা আফগান কূটনীতিকদের সাথে সাক্ষাৎ করে জানিয়েছেন যে, তিনটি আফগান মিশনের “কার্যক্রম সুশৃঙ্খলভাবে বন্ধ” করা হচ্ছে।

কাবুলে প্রাক্তন আফগান সরকারের পতন ও ওয়াশিংটনে কয়েকমাস ব্যাপী প্রশাসনিক ও কূটনৈতিক বচসার পর এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত প্রায় ১০০ জন আফগান কূটনীতিকের বেশিরভাগ ইতোমধ্যে হয় যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয়ের জন্য আবেদন করেছেন অথবা কানাডায় চলে গেছে্ন। তবে ২৩ এপ্রিলের মধ্যে প্রায় ২৫ জন কূটনীতিকের যুক্তরাষ্ট্রে তাদের ইমিগ্রেশন স্ট্যাটাস পরিবর্তন করতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্রই প্রথম দেশ যারা আফগান দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো দেশ আফগানিস্তানের ডি ফ্যাক্টো তালিবান সরকারকে স্বীকৃতি না দিলেও অনেকেই তালিবান কর্মকর্তাদের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করেছে।

রাষ্ট্রবিহীন কূটনীতি

প্রাক্তন আফগান সরকারের পতন এবং প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ হানিফ আতমারসহ প্রায় সমস্ত প্রাক্তন কর্মকর্তা আফগানিস্তান ত্যাগ করা সত্ত্বেও আফগান কূটনীতিকরা অনড়ভাবে বলেছিলেন যে, তারা এখনও বিদেশে আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করেন।

একটি ইউরোপীয় দেশে একজন বর্তমান আফগান রাষ্ট্রদূত ভয়েস অফ আমেরিকাকে বলেন,” প্রত্যেক রাষ্ট্রদূত একটি সার্বভৌম সত্ত্বা হিসেবে কাজ করে এবং এখানে চেইন অফ কমান্ডের কোনো ব্যাপার নেই।“

তিনি আরও বলেন, “আমাদের বৈধতা রয়েছে বলে নয়, বরং তালিবানকে বিশ্ব ঘৃণা করে বলে আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।“

XS
SM
MD
LG