অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত ভুলবশত পাকিস্তানের ভেতরে ক্ষেপনাস্ত্র নিক্ষেপের পর নীতি পৰ্যালোচনা করছে  


পাকিস্তানের তল্লাশি দল পাকিস্তানের মিয়ান চান্নুর কাছে ধ্বংসপ্রাপ্ত মিসাইলটি পরীক্ষা করে দেখছেন, ৯ই মার্চ, ২০২২/পাকিস্তানী নিরাপত্তা সূত্র/রয়টার্স

ভারত মঙ্গলবার জানায় তারা তাদের অস্ত্র পরিচালনা কর্মসূচি পৰ্যালোচনা করে দেখবে এবং ভুল করে যে নিরস্ত্র একটি সুপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র গত সপ্তাহে চির-প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ পাকিস্তানে গিয়ে পড়ে, তার যে কোনো ত্রুটিবিচ্যুতি মেরামত করবে।

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং আইনপ্রণেতাদের জানান, তার সরকার এই ঘটনাটিকে গুরুতর ভাবে নিয়েছে এবং এটি কেন ছোড়া হয়েছিল তার কারণ অনুসন্ধানে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত শুরু হয়েছে। তিনি সংসদকে নিশ্চিত করেন যে তাঁর দেশের ক্ষেপনাস্ত্র ব্যবস্থা “ অত্যন্ত নিরাপদ ও নির্ভরযোগ্য”।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশী দ্রুততার সঙ্গে সিংয়ের ব্যাখ্যাকে বাতিল করেন, তবে ইসলামাবাদের দাবি পুনর্ব্যক্ত করে বলেন যে নতুন দিল্লিকে এই ঘটনার যৌথ তদন্তে সম্মত হতে হবে। তিনি বলেন এই ঘটনা শুধুমাত্র এই অঞ্চল নয়, পুরো বিশ্বের জন্য ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে।

কোরেশী পাকিস্তানের রাজধানীতে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, "আমি আপনাদের মনে করে দিতে চাই যে এই ক্ষেপণাস্ত্রটি ছিল পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম এবং এটাকে নেহাত একটি দুর্ঘটনা বললে তা যথেষ্ট হবে না"।

কোরেশী বলেন যে তিনি জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে সোমবার ঘটনার ভয়বহতা নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি আরো জানান যৌথ তদন্তের জন্য পাকিস্তানের দাবির প্রতি গুরুত্ব দিতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে।

ভারতের ভূমি থেকে ভূমিতে উৎক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্রটি ভুলবশত ৯ই মার্চ ছোড়া হয়েছিল।

XS
SM
MD
LG