অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

'দ্য ব্যাটম্যান' চলচ্চিত্রটি বক্স অফিসে এখনও শীর্ষে, আয় ৩০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে


ওয়ার্নার ব্রাদার্স প্রকাশিত এই ছবিতে "দ্য ব্যাটম্যান" সিনেমার একটি দৃশ্যে জো ক্রাভিটজ, (বাঁদিকে) এবং রবার্ট প্যাটিনসন।

"দ্য ব্যাটম্যান" সিনেমা হলে টানা তিন সপ্তাহ ধরে চলছে এবং বক্স অফিসে শীর্ষস্থানে শক্ত দখল নিয়ে আছে।

স্টুডিওর হিসাব মতে, রবিবার পর্যন্ত রবার্ট প্যাটিনসনের এই ছবিটি, মুক্তি পাবার সপ্তাহান্তেই অতিরিক্ত ৩.৬৮ কোটি ডলার উপার্জন করেছে। এছাড়া অনুমানের আগেই আয়ের পরিমাণ ৩০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেলো।

ওয়ার্নার ব্রাদার্সের এই ছবিটি ২০২২ সালের সর্বোচ্চ আয় করা সিনেমা এবং মহামারী শুরুর পর থেকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ (আয়ের দিক থেকে প্রথম স্থানে আছে "স্পাইডার-ম্যান: নো ওয়ে হোম" ছবিটি)।

পরিচালক ম্যাট রিভস লন্ডনে "দ্য ব্যাটম্যান" ছবির স্ক্রীনিংয়ের জন্য আগমনের সময় ফটোগ্রাফারদের সামনে পোজ দিচ্ছেন৷ ২৩শে ফেব্রুয়ারী ২০২২।
পরিচালক ম্যাট রিভস লন্ডনে "দ্য ব্যাটম্যান" ছবির স্ক্রীনিংয়ের জন্য আগমনের সময় ফটোগ্রাফারদের সামনে পোজ দিচ্ছেন৷ ২৩শে ফেব্রুয়ারী ২০২২।

ম্যাট রিভস পরিচালিত "দ্য ব্যাটম্যান", এই সপ্তাহান্তে বিশ্বব্যাপী ৪.৯১ কোটি ডলার আয় করেছে। শুধু চীন একমাত্র জায়গা যেখানে "দ্য ব্যাটম্যান" হোঁচট খেয়েছে বলে মনে হচ্ছে, কারণ চীনে প্রদর্শনীর শুরুর প্রথম সপ্তাহান্তে উপার্জন করেছে মাত্র ১.২১ কোটি ডলার। অবশ্য মহামারীর কারণে চীনে প্রায় ৪৩% সিনেমা হল এখনো বন্ধ রয়েছে, সেটাই এর বড় কারণ। তবু "দ্য ব্যাটম্যান" এখনও "আনচার্টার্ড" থেকে কিছুটা ভালো করেছে, ছবিটি এই সপ্তাহান্তে মুক্তি পাবার পর আয় করেছে ১.০৩ কোটি ডলার।

বিপণনের জন্য ব্যয় করা অর্থের হিসাব ছাড়াই, "দ্য ব্যাটম্যান" ছবিটি নির্মাণ করতে আনুমানিক ২০ কোটি ডলারের মতো খরচ হয়েছে। কিন্তু এটি ইতিমধ্যেই ওয়ার্নার ব্রাদার্সের জন্য একটি বড় অর্জন। ২০২১ সালে বক্স অফিসে দারুণ হিট হয়েছিল "দ্য ব্যাটম্যান", কারণ ছবিটি একই সাথে প্রেক্ষাগৃহে এবং এইচবিও ম্যাক্স-এ মুক্তি পেয়েছিল।

XS
SM
MD
LG