অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইতিহাস গড়ে গর্বিত তামিম


দক্ষিণ আফ্রিকার প্রিটোরিয়ার সেঞ্চুরিয়ন পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং বাংলাদেশের মধ্যে তৃতীয় এবং শেষ একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে জয় শেষে এভাবেই শূন্যে লাফিয়ে উঠলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক তামিম ইকবাল৷ ২৩শে মার্চ, ২০২২।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইতিহাস গড়ে গর্বিত বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। বুধবার সেঞ্চুরিয়নে সিরিজের তৃতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে স্বাগতিকদের ৯ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করার পর তামিম ইকবাল জানিয়েছেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য অর্জনটা বিরাট।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তামিম বলেছেন, ‘আমি গর্বিত। বিশেষ করে যখন দেখি একজন বাংলাদেশি ফাস্ট বোলার ৫ উইকেট নিয়ে আমাদের সিরিজ জেতাচ্ছে, একই সঙ্গে সিরিজ সেরাও হয়েছে। আমাদের সব কোচের অবদান আছে এই সাফল্যে, এমনকি সাবেক কোচদেরও। অর্জনটা আসলেই বিশাল। আমরা যারা সিনিয়র খেলোয়াড় আছি তাদের জন্যও এটি বিরাট অর্জন। আমি এই সাফল্যকে সবার ওপরেই রাখব।’

বিদেশের মাটিতে জয় বলেই তামিমের কাছে এটি বিশেষ, ‘ওয়ানডে ক্রিকেটে আমরা খুবই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। আমরা এতদিন কেবল বিদেশের মাটিতেই জিততে পারছিলাম না। এবার সেটি হয়েছে।’

সাকিব আল হাসান দেশে পরিবারের অসুস্থ সদস্যদের রেখেই খেলেছেন। এটিকে বড় ত্যাগই মনে করেন অধিনায়ক, ‘সাকিবের এখানে খেলাটা বিরাট ব্যাপার। তাঁর মা, শ্বাশুড়ি, আর বাচ্চারা হাসপাতালে। সে মানসিকভাবে কত দৃঢ়, সেটিই প্রমাণ হয়েছে।’

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে তিনটি ম্যাচেই প্রচুর বাংলাদেশি দর্শক খেলা দেখতে এসেছিলেন। তামিম জানিয়েছেন, বাংলাদেশি দর্শকদের জন্য তাদের কখনোই মনে হয়নি যে তারা বিদেশে খেলছেন, ‘বাংলাদেশি দর্শকেরা তো মাঠগুলোকে মিনি ঢাকা বানিয়ে ফেলেছিলেন। প্রতিটি ম্যাচেই তাদের সমর্থন ছিল দুর্দান্ত। আমাদের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো তো বলছিলেন, দর্শকেরা আমাদের দ্বাদশ খেলোয়াড়।’

সামনেই টেস্ট সিরিজ, সেখানে মুমিনুল হক নেতৃত্ব দেবেন বাংলাদেশকে। তামিম সেই ব্যাপারটি মনে করিয়ে দিয়ে জানিয়েছেন আশাবাদ, ‘আমি এখন বিশ্রাম নেব। আমি টেস্ট অধিনায়ক নই। তবে আমি নিশ্চিত, আমরা টেস্টেও ওয়ানডের মতোই ভালো করব।’

XS
SM
MD
LG